২০৫০ সালের মধ্যে অর্ধেক এশিয়া তলিয়ে যেতে পারে জলের তলায়, সতর্কবার্তা বিজ্ঞানীদের

0
182

অগ্নিভ ভৌমিক, বিশেষ সংবাদদাতা :- হাতে মাত্র আর ত্রিশটা বছর। এরই মধ্যে সমুদ্রের তীরবর্তি অঞ্চলের ৩০ কোটি বসতভূমি তলিয়ে যেতে পারে জলের তলায়, আশঙ্কা করছে বিজ্ঞানীরা। কারন মাত্রাতিরিক্ত জলস্তর বৃদ্ধি চিন্তায় ফেলে দিয়েছে পরিবেশ বিজ্ঞানীদের। এমনকি এটাও অনুমান করা হচ্ছে যে, জ্বালানি দূষণ শীঘ্রই বন্ধ না করলে, সেই সংখ্যা ২১০০ সালের মধ্যে ৬০ কোটি ছাড়িয়ে যেতে পারে। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের নিউ জার্সির বিজ্ঞান সংস্থা ‘ক্লাইমেট সেন্ট্রাল’-এর একটি গবেষণায় এ বার এমনই তথ্য উঠে এল।
মঙ্গলবার ‘ক্লাইমেট সেন্ট্রাল’ প্রকাশিত এক গবেষণাপত্র ‘নেচার কমিউনিকেশনস’-এ বলা হয়েছে, জলস্তর ক্রমশ বৃদ্ধি পাচ্ছে। তাই ২০৫০ সালের মধ্যে, সমুদ্রের জল উপকূল ছাপিয়ে উঠে আসার সম্ভাবনা প্রবল। যার ফলে ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে ১৫ কোটি মানুষ। তলিয়ে যেতে পারে ৩০ কোটি বসতভূমি।
মনুষ্যসৃষ্ট পরিবেশ দূষণ, গ্রিন হাউস গ্যাসের প্রভাবে বিশ্ব উষ্ণায়ন এবং ক্রমাগত জলবায়ু পরিবর্তন এই আসন্ন দুর্যোগের অন্যতম কারণ, মনে করেছে ক্লাইমেট সেন্ট্রাল। কারণ ক্রমাগত বেড়ে যাওয়া তাপমাত্রা, হিমবাহ গলনের পরিমাণকে ত্বরান্বিত করছে। গলতে শুরু করেছে, আন্টার্টিকার বরফের চাদর। যার ফলে বাড়ছে জলস্তর। এই শতাব্দীর মাঝামাঝি সময়ে সমুদ্রের জলস্তর ২ মিটারেরও বেশি বেড়ে যেতে পারে।
আর এই আসন্ন দুর্যোগে সবচেয়ে বেশী ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে এশিয়া, মূলত ভারত, বাংলাদেশ, চিন, ভিয়েতনাম, ইন্দোনেশিয়া, এবং থাইল্যান্ড। কারণ এশিয়া মহাদেশের সমুদ্রের তীরবর্তী এই অঞ্চলগুলিতে বহু মানুষের বসতভূমি। প্রায় ২৪ কোটির কাছাকাছি মানুষ ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে, এই মাত্রাতিরিক্ত জলস্তর বৃদ্ধির ফলে। তার মধ্যে বাংলাদেশের নয় কোটি ৩০ লক্ষ মানুষের বসতভূমি সমুদ্রের উপকূলবর্তী অঞ্চলে। চিনে সেই সংখ্যা পাঁচ কোটির কাছাকাছি। অবিলম্বে তাঁদের নিরাপদ দূরত্বে সরিয়ে নিয়ে যাওয়ার ব্যবস্থা করা উচিত বলে মত ইন্টারন্যাশনাল অর্গানাইজেশন ফর মাইগ্রেশনের আধিকারিক ডিনা লোনেস্কো।
তাঁর কথায়, ‘‘বহু দিন ধরেই সতর্ক করে আসছি আমরা। আমরা জানি কী হতে চলেছে। নাগরিকদের স্থানান্তরিত করতে এখন থেকেই ব্যবস্থা নেওয়া উচিত সব দেশের সরকারের।’’
বিগত কয়েক বছর ধরে প্রাকৃতিক দুর্যোগের কারণে বহু ক্ষয়ক্ষতির সমুক্ষিন হতে হয় ইন্দোনেশিয়াকে। যার জন্য ইন্দোনেশিয়ার সরকার, দেশের রাজধানী জাকার্তা থেকে বোনরেও তে নিয়ে আনার সিদ্ধান্ত নেয়। কারণ বর্তমানে, জাকার্তা বিশ্বের দ্রুত ডুবন্ত শহরের তকমা পেয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

1 × three =