হাওড়ার গ্ৰামীণের কিশোরী আর্টমার্শাল ও যোগব্যায়ামে আন্তর্জাতিক প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণের প্রস্তুতি নিচ্ছে

0

অভিজিৎ হাজরা, হাওড়াঃ- গ্ৰামীণ হাওড়া জেলার জয়পুর থানার অমরাগড়ি গ্ৰাম পঞ্চায়েতের ঘনশ্যামচক ওস্তাদজী পাড়ার হত দরিদ্র পরিবারের কন্যা সিরাজাম মনিরা। মনিরা- র বাবা একজন দিনমজুর, প্রচার বিমূখ সমাজসেবী বাবু হক। মা আম্বিয়া বেগম একজন দক্ষ জরিশিল্পী। ভাই সেখ রেজাউল ওয়াহেদ মহম্মদ মনিরুল হক এক চিলতে কুঁড়ে ঘরে বসবাস করে। সরকারি কোনো প্রকল্পের সহযোগিতা পাইনি।

মণিরা বর্তমানে পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার ডেবরা থানা ও ব্লকের বালিচক গার্লস হাই স্কুল থেকে এবছরই মাধ্যমিক পরীক্ষা দিয়েছে। লেখাপড়ার পাশাপাশি আত্মরক্ষা ও যোগব্যায়াম এর প্রশিক্ষণ নিচ্ছে ” জিৎ কোন আর্ট মার্শাল ট্রেনিং ইনস্টিটিউটে। মণিরা পশ্চিম মেদিনীপুরের বেলদা “মা জ্ঞানমা আশ্রম” এর আবাসিক।

বর্তমানে মণিরা নিজ গ্ৰাম হাওড়ার জয়পুরের ঘনশ্রামচক ওস্তাদজী পাড়ায় চূড়ান্ত প্রস্তুতি নিচ্ছে।
আর্টমার্শাল ট্রেনিং ইনস্টিটিউট এর প্রতিষ্ঠাতা ও কর্ণধার অঞ্জন হড় বলেন, প্রতিভাধর সিরাজাম মণিরা জাতীয় স্তরে যোগব্যায়াম ও আর্টমার্শাল প্রতিযোগিতা নিজ দক্ষতা ও পারদর্শিতার নিদর্শন দেখিয়ে পুরষ্কৃত হবে তা আমি আশা করছি।

সিরাজাম মণিরা বলে, বর্তমান পরিবেশ– পরিস্থিতি তে জগৎ বিখ্যাত বহু পুরষ্কারে পুরষ্কৃত ভূষলী- র মতাদর্শে এবং ভারতের মুনি – ঋষি ও যোগীদের যোগাভ্যাস কে সামনে রেখে আত্মরক্ষা ও শরীরচর্চার মাধ্যমে নিজেকে রক্ষা করা এবং সুস্থ-সবল রাখার জন্য আমি আর্টমার্শাল ও যোগব্যায়াম প্রশিক্ষণ নিচ্ছি। আমার লক্ষ্য আর্টমার্শাল ও যোগব্যায়াম এ আন্তর্জাতিক প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করে সফলতার সঙ্গে আমার গ্ৰাম, আমার ট্রেনিং ইনস্টিটিউট, আমার প্রশিক্ষক, আমার জেলা-রাজ্য সর্বপরি আমার মাতৃভূমি ভারতবর্ষের মুখোজ্জ্বল করার।

মণিরা এও বলে, বর্তমান পরিবেশ- পরিস্থিতির দিকে লক্ষ্য রেখে প্রত্যেক পরিবারের সদস্যদের উচিত তাদের বাড়ির কন্যা সন্তান ও মহিলাদের আর্টমার্শাল ও যোগব্যায়াম চচ্চার জন্য উব্ধুদ্ধ করা।এর ফলে কন্যা সন্তানরা রাস্তাঘাটের পরিস্থিতিতে তাদের নিজেদের রক্ষা করতে পারবে। শরীর গঠন ও সুস্বাস্থ্যের অধিকারী হবে। মহিলারা যোগাভ্যাসের মাধ্যমে নিজেদের সুস্থ-সবল রাখতে পারবে।

সিরাজাম মণিরা -মা আম্বিয়া বেগম বলেন, মেয়েকে একজন সফল আর্টমার্শাল ও যোগব্যায়ামবীর তৈরী করার জন্য সমস্ত রকম ত্যাগ স্বীকার করতে আমি প্রস্তুত।বাবা দিনমজুর বাবু হক জানালেন, মেয়েকে একজন সফল আর্টমার্শাল ও যোগব্যায়ামবীর তৈরী করার জন্য সমাজের সর্বস্তরের মানুষের কাছ থেকে সহযোগিতা ,প্রার্থনা, দোয়া-আর্শীবাদ প্রত্যাশা করি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

17 + fifteen =