লক-ডাউনের জের, খাদ্যের অভাবে ব্যাঙ খেয়ে দিন কাটছে শবরদের

0

নিশীথ ভূষণ মাহাতো, পুরুলিয়াঃ- বিশ্বত্রাস ‘করোনা’ । পৃথিবী জুড়ে দাপটে রাজ শুরু করেছে করোনা নামক ‘আন্তর্জাতিক সন্ত্রাসী ‘ গোষ্ঠী । আমেরিকা, চীন, ব্রিটেন, ইতালি, ফ্রান্স, জার্মানি র মতো আর্থিক ক্ষমতায় অথবা বিজ্ঞান গরিমায় গর্বিত তাবড় দেশ গুলোতে আজ বুক ফুলিয়ে দাপটের রাজ চালাচ্ছে করোনা । একে ঠেকাতে হিমসিম খাচ্ছে বিশ্ব । এখনও এই মারণ সংক্রামক ব্যাধির যথাযথ ওষুধ আবিষ্কার না হওয়ায় মৃত্যুর সংখ্যা লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে । ইতিমধ্যেই বিশ্বে ৩৪ হাজারেরও বেশি মানুষ মারা গেছে করোনার থাবায় ।

বিশেষজ্ঞদের মতে একে ঠেকাতে একমাত্র উপায় সামাজিক দূরত্ব এবং সচেতনতা । তাই বিশ্ব জুড়ে লক- ডাউনকেই ভরসা করা হচ্ছে । আমাদের দেশেও একুশ দিন লক ডাউন চলছে । তাতে সংক্রমণ কিছুটা ধীর গতিতে চলছে তবে এখনও নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভব হয়নি ।

তবে এই লক ডাউনের জন্য দেশের নানা প্রান্তে নানান সঙ্কট দেখা দিয়েছে । কোথাও শ্রমিকরা কাজ হারিয়ে আটকে পড়েছে ভিন রাজ্যে, খেতে পাচ্ছে না । আসতেও পারছে না । কোথাও জীবনদায়ী ঔষধ অমিল ত কোথাও নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিসের আকাল । দামও আকাশ ছোঁয়া ।

তবুও করোনা থেকে বাঁচতে মানুষ লক ডাউন মোটামুটি মেনে চলছেন । কোনো কোনো বড়ো বড়ো শহরের ছবিটা একটু ভিন্ন হলেও পুরুলিয়ার মতো প্রান্তিক জেলার মানুষ লক ডাউন বেশ ভালোভাবেই মেনে চলছেন কষ্ট সহ্য করেও । এক্ষেত্রে পুরুলিয়ার কেন্দা থানার রমইগাঢ়া গ্রামের শবর পল্লীর চিত্রটি খুবই হৃদয় বিদারক । এখানে প্রায় তিরিশটি পরিবারের বাস । এই শবররাই পুরুলিয়ার সবচেয়ে অনুন্নত জনগোষ্ঠী গোষ্ঠী গুলোর একটি । এদের জমিজমা নেই । পেশা বলতে ভিন রাজ্যে ইট ভাটার শ্রমিক । এখন কাজ হারিয়ে লক ডাউনে গৃহবন্দী হওয়ায় প্রবল ভাবে খাদ্য সঙ্কট দেখা দিয়েছে এখানে । তাই বাধ্য হয়ে ব্যাঙ – সাপ খেয়েই দিন কাটাতে হচ্ছে এদের।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

thirteen + 7 =