সংবাদদাতা, বসিরহাটঃ- নির্বাচনের ফল ঘোষণার পর থেকে সারা রাজ্যের সঙ্গে হিঙ্গলগঞ্জ বিধানসভা এলাকাতেও সন্ত্রাসের কবলে পরতে হয়েছে বিজেপি কর্মীদের এমনই অভিযোগ। হিঙ্গলগঞ্জ বিধানসভা কেন্দ্র থেকে পুনরায় বিধায়ক হিসেবে শপথ গ্রহণের পর থেকেই এলাকার বিজেপি কর্মীদের ঘরে ফেরার উদ্যোগ নিয়েছে হিঙ্গলগঞ্জের বিধায়ক দেবেশ মন্ডল। তারপরও বিধানসভার শতাধিক পুরুষ ও মহিলা বিজেপি কর্মী ঘরছাড়া থাকায় বিধায়কের এই উদ্যোগকে কটাক্ষ করতে ছাড়ছেন না বিজেপি নেতারা।

এই উদ্যোগের পরেও হিঙ্গলগঞ্জ বিধানসভার এক অন্তঃসত্ত্বা মহিলা সহ শতাধিক কর্মী প্রাণ বাঁচাতে ঘর ছেড়ে অন্যত্র আশ্রয় নিয়েছেন বলে জানান হিঙ্গলগঞ্জ বিজেপি প্রার্থী নিমাই দাস । তিনি বলেন নতুন সরকার গঠনের পর থেকেই বিজেপি কর্মীদের বাড়িতে বেছে বেছে হামলা চালানো হচ্ছে। বাড়ি ঘর দোকান ভাঙচুরের পাশাপাশি লুটপাট চালানো হচ্ছে। বিজেপি কর্মীরা ঘর ছাড়া থাকার সুযোগে রাতের অন্ধকারে সর্বস্ব লুট করা হচ্ছে তাদেরকে। এদিকে ভয় দেখিয়ে টাকার চুক্তি করিয়ে ঘরে ফেরানো হচ্ছে বিজেপি কর্মীদের এমনই অভিযোগ বিজিপি সূত্রে। এছাড়াও কর্মীদের আমফানের টাকা ফেরত দিতে বাধ্য করানো হচ্ছে, রেশন কার্ড কেড়ে নেওয়া হচ্ছে, আয়লার চাল বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে একাধিক অভিযোগ। এই মুহূর্তে শতাধিক বিজেপি কর্মী সহ এক অন্তঃসত্ত্বা মহিলা বিজেপি কর্মী আশ্রয় নিয়েছে গোপন জায়গায়।

জানা যায়, বিধানসভা নির্বাচনের ফল ঘোষণার পর থেকে হিঙ্গলগঞ্জ বিধানসভার খুলনা পঞ্চায়েতের হাটগাছা গ্রামে তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীদের হামলার শিকার হতে হয় দেবব্রত মন্ডল নামে এক তপশিলি বিজেপি কর্মীর পরিবারকে। প্রাণ বাঁচাতে অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রীকে নিয়ে ঘর ছেড়ে হিঙ্গলগঞ্জ বিজেপি প্রার্থী নিমাই দাসের বাড়িতে আশ্রয় নেন দেবব্রত মন্ডল। বর্তমানে প্রায় শতাধিক পুরুষ ও মহিলা ঘরে আশ্রয় নিয়েছেন নিমাই দাস এর বাড়ি ও হাসনাবাদের। ঘরছাড়া বিজেপি কর্মীরা যখন ঘরে ফেরার আশায় দিন গুনছি তখন শেষ মুহূর্তে অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রীর জীবন রক্ষার লড়াই চালিয়ে যাচ্ছেন দেবব্রত মন্ডল।

এই বিষয়ে তৃণমূলের তরফ থেকে অস্বীকার করে জানান এইরকম ধরনের কোন ঘটনাই হিঙ্গলগঞ্জ ,হাসনাবাদ বিধানসভায় ঘটেনি।