নিজস্ব প্রতিনিধি :- হালিশহর 8 নম্বর ওয়ার্ড সংলগ্ন ভাগাড়ে জলের সেপটিক ট্যাংক থেকে পচা গলা দেহ উদ্ধারের একদিনের মধ্যে কোন কিনারা করল বীজপুর থানার পুলিশ। মৃত যুবকের নাম মিলন খাঁ (২০)। মৃতের বাবা মলয় খাঁ বর্ধমানের সদর কাঞ্চননগর ধানতলার বাসিন্দা। পুলিশ তদন্তে নেমে জানতে পারে দীর্ঘদিন ধরে মিলনের সঙ্গে ফেসবুকে প্রেম চলছিল হালিশহর লক্ষী নারায়ন পল্লীর বাসিন্দা সোনালী হালদার (২১)-এর । তা স্বামী সৌমিত্র হালদার জেনে যাওয়ায় সংসারে নেমে আসে চরম অশান্তি। বিবাহিত সম্পর্ক থাকার পরও দীর্ঘদিন ধরে ফোনে মিলন খাঁ কে বোঝাতে থাকে স্বামীর সৌমিত্র হালদার। গত ২৬ মিলন খাঁ তারিখ বর্ধমান থেকে চলে আসে। হালিশহরে সেইখান থেকে যেতে না চাইলে রাত সাড়ে আটটা নাগাদ মিলন খাঁ কে গলা টিপে খুন করে ফেলে দেয় ভাগাড়ের ওই সেপটিক ট্যাংকে। বীজপুর থানার পুলিশ এই ঘটনায় দম্পতি কে গ্রেফতার করে । আজ তাদের ব্যারাকপুর মহকুমা আদালতে নিয়ে যাওয়া হয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

4 × one =