অলোক আচার্য, নববারাকপুরঃ- স্বাধীনতা দিবসের ৭৫ বছর পূর্তি উপলক্ষে নববারাকপুর পুরসভার ৯১ টি সামাজিক সংগঠন একত্রিত হয়ে রবিবার সকালে স্থানীয় জাগৃতি সংঘের প্রাঙ্গণে এক বিরাট রক্তাপর্ণ উৎসব করল নববারাকপুর ক্লাব সমন্বয় সমিতি। উৎসবের শুভ উদ্বোধন করেন সমিতির প্রধান উপদেষ্টা তথা রাজ্যের অর্থমন্ত্রী চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য। রক্তদাতাদের উৎসাহিত করতে উপস্থিত ছিলেন রাজ্যের সেচ ও জলসম্পদ দফতরের মন্ত্রী পার্থ ভৌমিক, খাদ্যমন্ত্রী রথীন ঘোষ, সাংসদ সৌগত রায়, বিধাননগর পুরনিগমের মেয়র পারিষদ দেবরাজ চক্রবর্তী, সমাজসেবী বানিব্রত চক্রবর্তী, অভিজিৎ নন্দী, গৌতম মজুমদার, কলকাতা কর্পোরেশনের ৮৬ নম্বর ওয়ার্ডের পুর প্রতিনিধি সৌরভ বসু, বিশ্বরূপ দে, আই এফ এ সভাপতি অজিত বন্দ্যোপাধ্যায়, ভারতীয় ফুটবল দলের প্রাক্তন অধিনায়ক বিশ্বজিৎ ভট্টাচার্য, মধ্যমগ্রাম পুরসভার পুরপ্রধান নিমাই ঘোষ, উত্তর দমদম পুরসভার পুরপ্রধান বিধান বিশ্বাস, আইএএস নারায়ণ চন্দ্র সরকার, নববারাকপুর পুরসভার বিভিন্ন ওয়ার্ডের পুর প্রতিনিধিগন ও সমাজকর্মীরা।

ক্লাব সমন্বয় সমিতির অন্যতম সভাপতি তথা পুরসভার পুরপ্রধান প্রবীর সাহা এবং সম্পাদক পুর প্রতিনিধি দেবাশিস মিত্র বলেন, স্বাধীনতার ৭৫ বছর পূর্তি উপলক্ষে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির নতুন মেলবন্ধন এই রক্তার্পণ উৎসব। কলকাতা এসএসকেএম হাসপাতাল ব্লাড ব্যাঙ্ক, আরজিকর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল ব্লাড ব্যাঙ্ক এবং মানিকতলা কেন্দ্রীয় ব্লাড ব্যাঙ্কের সহযোগিতায় শিবিরে ৭৩২ জন রক্তদান করেন এদিন। রামের রক্তে রহিম বাচবে এবং রহিমের রক্তে মাইকেল বাঁচবে। চাঁদে মানুষ পাঠাচ্ছে। কিন্তু রক্তের কোন বিকল্প তৈরি হয় নি। বিভিন্ন মনীষীদের স্মরণে উৎসর্গীকৃত স্বাধীনতার ৭৫ বছর পূর্তি উপলক্ষে এই বিরাট রক্তার্পণ উৎসব নববারাকপুর ক্লাব সমন্বয় কমিটির উদ্যোগে।

উপস্থিত সাংসদ থেকে বিধায়ক মন্ত্রী খেলোয়াড় সমাজকর্মী রা রক্তদান উৎসবের রক্তদাতাদের এবং সমন্বয় কমিটির সদস্যদের কৃতজ্ঞতা জানান। এত সুন্দর পরিবেশ। সুন্দর ব্যবস্থাপনায়। দেশের বীর স্বাধীনতা সংগ্রামী মনীষীদের ও সেনানীদের উৎসর্গীকৃত করা হয়েছে এদিন। মাস্টারদা সূর্য সেন, ঋষি অরবিন্দ, ক্ষুদিরাম বসু, নেতাজি সুভাষ চন্দ্র বসু, প্রফুল্ল চাকী, মাতঙ্গিনী হাজরা থেকে রবীন্দ্রনাথ, নজরুল, সুকান্ত ভট্টাচার্য, বঙ্কিমচন্দ্র চট্টোপাধ্যায় মতো মহান মনীষীর প্রতিচ্ছবিতে মালা দিয়ে শ্রদ্ধা জানান হয় এদিন ।