সৌগত মন্ডল, বীরভূম :- স্বাধীনতা দিবস ও রাখীবন্ধন উৎসব। ওই দিনে রামপুরহাট বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে বাংলাদেশের পতকা নিয়ে একটি অনুষ্ঠান করা হয়। তার পর থেকে সোস্যাল মিডিয়া ও বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলো প্রতিবাদে গর্জে ওঠেন। সম্প্রতি বিজেপি দলের পক্ষ থেকে মহকুমা শাসক শ্বেতা আগরওয়াল কে একটি স্মারক লিপি ও দেন। বিষয়টি তদন্ত করে আইনত ব্যাবস্থা নেবার জন্য। যদিও স্কুল কর্তৃপক্ষ বারবার জানিয়েছেন এটা একটা সম্প্রতির গানের উপর অনুষ্ঠান ছিল। তাতে ছাত্রীরা দুই দেশের পতাকা ব্যবহার করেছে। এতে দেশকে অবমাননা বা অপরাধের কিছু ছিল না। কিন্তু ওই বিষয়টি নিয়ে লাগাতার রাজনীতি করার প্রতিবাদে আজ রামপুরহাটের সমস্ত বিদ্যালয়ের ছাত্র ছাত্রীরা মিছিল বের করে, কিন্তু মিছিলে সামনে স্কুলের ব্যানারে ইংরেজিতে স্কুল বানান ভুল ছিল। কোনো হুঁশ নেই, স্কুল কর্তৃপক্ষের। মিছিলটি শহর পরিক্রমা করে পাঁচ মাথায় শেষ হয়। শুধু ছাত্র ছাত্রী নয় মিছিলে হাঁটেন স্কুলের শিক্ষক শিক্ষিকারা, স্কুল ম্যানেজিং কমিটির সদস্যরা। এবিষয়ে বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে এক ছাত্রী জানায়, সামান্য একটা বিষয় নিয়ে রাজনীতি করে বিদ্যালয়ের নাম তথা শহরের বদনাম করা হচ্ছে। এটা লজ্জার ব্যাপার, এরই প্রতিবাদে আমরা রাস্তায় নেমেছি। পাঁচমাথায় ছাত্র ছাত্রীরা জমায়েত হয়ে ছাত্র ছাত্রীরা শহরবাসীর কাছে আবেদন করে গুজবে যেন কান না দেন শহরবাসী বহু প্রাক্তন ছাত্রীরা ও সামিল হন প্রতিবাদ মিছিলে। তাদের ও বক্তব্য শিক্ষাঙ্গনে রাজনীতি বন্ধ হোক।