নিজস্ব সংবাদদাতা, পুরুলিয়াঃ- কেক কেটে জন্মদিন পালন না করে স্কুলের বাচ্চাদের শিক্ষা সামগ্রিক দিয়ে মেয়ের জন্মদিন পালন করলেন এক দম্পতি।

আর পাঁচজনের মতো নয়, মেয়ের জন্মদিন পালন করলেন একটু অন্যরকম ভাবে। জন্মদিন মানেই বাড়িতে কেক কাটা খাওয়া-দাওয়া এলাহি আয়োজন। কিন্তু না চিরাচরিত সংস্কৃতির বাইরে গিয়ে কালি মন্দিরে পুজো দিয়ে পায়েশের ভোগ তৈরি করে চল্লা প্রাথমিক বিদ্যালয়ের বাচ্চা দের নিয়ে অদ্রিজার জন্মদিন পালন করলেন পিতা সুরেশ চন্দ্র মন্ডল ও মাতা সিমা মন্ডল ।

সুরেশ চন্দ্র মন্ডল পেশায় মানবাজার ১ নম্বর ব্লকের চল্লা প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক। আজ শুক্রবার মানবাজার শ্মশান কালি মন্দিরে কাছে এক গাছের তলায় ওই বিদ্যালয়ের প্রায় ৪৫ জন শিশুকে জন্ম দিন উপলক্ষে প্রত্যেক ছাত্র -ছাত্রীকে খালাতা করে পায়েশ খেতে দেওয়া হয় তার পর তাদের হাতে খাতা, কলম, পেন, পেন্সিল, রঙ পেন্সিল এবং বাড়ি যাওয়ার সময় একটি করে কুরকুরি দেওয়া হয়।

সুরেশ চন্দ্র মন্ডল বলেন, দীর্ঘ দিন ধরে স্কুল বন্ধ রয়েছে স্কুলের বাচ্চাদের একঘেয়েমি কাটাতে এবং যাতে তারা আনন্দে থাকে তাই এই ছোট্ট প্রয়াস।

বিদ্যালয়ের চতুর্থ শ্রেণির পুজা নারায়ণ দেব বলেন, স্যারের মেয়ের জন্মদিন , জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানালাম এবং সকলে এক সাথে মজা করলাম। অভিভাবক নিরঞ্জন নারায়ণ দেব বলেন, খুবেই ভালো উদ্যোগ আমরা সব সময় স্কুলের পাশে থাকবো।

অদ্রিজার মা সিমা মন্ডল বলেন, বহুদিন ধরে স্কুল বন্ধ রয়েছে তাই তার বান্ধবীদের সাথে জন্মদিন পালন করলে স্কুলের বাচ্চাদের ও মন ভালো থাকবে।