সংবাদদাতা, বারাসত :- খাদ্যমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিককে খুনের ষড়যন্ত্রের অভিযোগ।বাংলাদেশি সুপারি কিলার ভাড়া করা হয় বলে অভিযোগ। পাঁচ লাখ টাকা অগ্রিম ও কাজ হয়ে গেলে আরও পঁচিশ লাখ টাকা দেওয়ার কথা।সুপারি কিলারদের মধ্যে একজন মন্ত্রীর সহকর্মীকে ফোন করে একথা জানায়।
মন্ত্রীর অভিযোগ ওই কিলার জানায় বনগাঁর সমাজ বিরোধী দেবদাস মন্ডল কৈলাশ বিজয় বর্গী, মঞ্জুল কৃষ্ণ ঠাকুর ও শান্তুনু ঠাকুর তাকে হত্যার ষড়যন্ত্র করছে। গোবরডাঙ্গা থানায় অভিযোগ দায়ের।

গত পাঁচ তারিখ খাদ্যমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিকের সহ কর্মীর কাছে সন্ধ্যে ৭ টা নাগাদ +৮৮০১৭২০৩৬০৩৮৪ নাম্বারে ফোন করে এবং পুনরায় ৮:৫০ নাগাদ +৭১১৭২০৩৬০৩৮৪ এই নাম্বার থেকে ফোন আসে।এবং যে ফোন করেছিল সে নিজেকে বাংলাদেশি বলে পরিচয় দেয়।এবং বলে বনগাঁর এক কুখ্যাত সমাজ বিরোধী দেবদাস মন্ডল ঠাকুরনগরে বসে কিছু বিজেপি নেতা যার মধ্যে কৈলাশ বিজয় বর্গী, মঞ্জুল কৃষ্ণ ঠাকুর, শান্তনু ঠাকুর এদের সঙ্গে বসে খাদ্যমন্ত্রী কে খুনের ষড়যন্ত্র করছে বলে অভিযোগ । দেবদাস মন্ডল ওই ব্যক্তির সঙ্গীদের সুপারি দিয়েছি তাকে মারার জন্য।এবং অগ্রিম হিসাবে পাঁচ লাখ টাকা দিয়েছে।কাজ হলে বাকি ২৫ লাখ টাকা দেবার কথা আছে।সে মন্ত্রীর সহকর্মীকে ফোন করে জানায় সে নিজেও ওই বাংলাদেশি সুপারি কিলার দের মধ্যে একজন।সে জানায় ইতিমধ্যে ওই সুপারি কিলারদের একটা অংশ বনগাঁয় ঢুকে পড়েছে এবং বর্তমানে দেবদাস মন্ডলের আশ্রয়ে আছে।।

এই খবর পাওয়ার পর মন্ত্রী পাঁচ তারিখ গোবরডাঙ্গা থানায় অভিযোগ জানায়।গোটা ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে গোবরডাঙ্গা থানার পুলিশ।