অলোক আচার্য, নববারাকপুরঃ- সাজিরহাট পেট্রোল পাম্পে সঠিক তেল না দেওয়ার অভিযোগ এনে শনিবার সকালে ভাঙচুর পেট্রোল পাম্পে।ধুন্ধুমার কান্ড পাম্পে। পরিস্থিতি সামাল দিতে ঘটনাস্থলে DCP ব্যারাকপুর পুলিশ বাহিনী আসে।

অভিযোগ পেট্রোল নিতে আসা কিছু যুবকের দাবি, এই পেট্রোল পাম্প থেকে তেল কম দেওয়া হচ্ছে। সেই অভিযোগ এনে শনিবার সকালে পাম্পের মধ্যে উত্তেজনা ছড়ায়। এমনকি পাম্পে ভাঙচুর চালানো হয়। পরবর্তী খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে আসে নব বারাকপুর থানার বিশাল পুলিশ বাহিনি সহ DCP ব্যারাকপুর সেন্ট্রাল জোনের আধিকারিকরা। পেট্রোল পাম্পের CCTV ফুটেজ ক্ষতিয়ে দেখে, যারা ভাঙচুর চালায় তাদেরকে চিহ্নিত করা হয়,ইতিমধ্যেই একজনকে আটক করেছে। তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করে এই ঘটনায় যারা যারা জড়িত তাদের খোঁজ চালাবে।

পেট্রোল পাম্প সূত্রে জানা যায়, মেশিনের সমস্যার জন্য ১লিটার পেট্রোল দেওয়া হলে ছয়শো পেট্রোল যাচ্ছে, যা সম্পূর্নটাই মেশিনের যান্ত্রিক ত্রুটি। সেই কারণে পাম্পে আসা কিছু যুবক উত্তেজিত হয়ে ভাঙচুর চালায়। এর আগেও এই ধরনের ঘটনা ঘটেছে। কোন হেলদোল নেই মালিক পক্ষের। গোটা ঘটনার তদন্তে নিউ বারাকপুর থানার পুলিশ। সাঝির হাটে পেট্রোল পাম্পে ভাঙচুরের ঘটনায় শনিবার আটক হওয়া যুবকের অভিযোগ সে নির্দোষ। উল্টে তাকেই মারধর করা হয়েছে।

অন্যদিকে, পেট্রোল পাম্প কর্তৃপক্ষ জানান ১৪ বছরে এমন ঘটনা কোনদিন ঘটেনি। যদি তেল কম কেউ পেয়ে থাকে তাহলে জানাতে পারতো, অভিযোগ থানায় করতে পারতো, কিন্তু এইভাবে ভাঙচুর চালানো ঠিক হয়নি। প্রশাসন বিষয়টি দেখছে, সিসিটিভি ফুটেজ দেখেছে, তারা যা করার করবে। পাম্পের আসা কিছু যুবকের অভিযোগ ছিল তেল কম পেয়েছে, পাম্পে প্রতিদিন চেক করা হয়, গতকাল ও সেলস অফিসার এসে ভিজিট করে গেছে।

দীর্ঘদিন ধরে সততার সাথে ব্যবসা করে আসছে বলে দাবি পাম্প কর্তৃপক্ষের। ১৪ বছরে এমন কোন অভিযোগ হয়নি বলে দাবি মালিল পক্ষের, আর যদি কোন অভিযোগ থাকে সেটা প্রশাসনকে জানাতে পারতো বলে দাবি কর্তৃপক্ষের। অন্যদিকে আটক যুবকের দাবি এই পাম্পে তেল চুরি করা হয়েছে তাই কিছু যুবক ভাঙচুর চালিয়েছে, এর আগেও এমন ঘটনা ঘটেছে, সে কোন দোষ করেনি, উল্টে তাকে মারধর করেছে বলে অভিযোগ করা হয়। গোটা ঘটনার তদন্তে নিউ বারাকপুর থানার পুলিশ।