মোর্তজা আহমেদ, নদিয়া :- নদিয়ার ধুবুলিয়ার তাতলা ১ নং নেতাজি ক্লাব এলাকায় শ্লীলতাহানির প্রতিবাদ করায় যুবককে পিটিয়ে খুন করল দুষ্কৃতীরা। পুলিশ সূত্রে খবর, মৃতের নাম দুলাল বৈদ্য (৪২)। বাড়ি তাতলা ১ নং নেতাজি ক্লাব এলাকায়। দুলাল বৈদ্য ওয়েল্ডিং মিস্ত্রির কাজ করতেন। তিনি বিবাহিত হলেও তার কোন সন্তান নেই, বাড়িতে স্ত্রী ও বৃদ্ধা মা আছেন।

গত বৃহস্পতিবার দুর্গা উৎসব উপলক্ষে ধুবুলিয়ার তাতলা বাজারে এক বিচিত্রা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয় তাতলা বারোয়ারি পুজো কমিটির পক্ষ থেকে। অনুষ্ঠানে স্থানীয় বাসিন্দা দুলাল বৈদ্য স্বেচ্ছাসেবক দায়িত্ব সামলাচ্ছিলেন। অনুষ্ঠান চলাকালীন মহিলাদের সঙ্গে অশালীন আচরণের প্রতিবাদ করায় পাশের পলতা গ্রামের বেশ কয়েকজন দুষ্কৃতি দুলাল বৈদ্যকে বেধড়ক মারধর করতে শুরু করে।

এরপর স্থানীয়রা এবং পূজা কমিটির সদস্যরা মিলে তাকে প্রথমে প্রাথমিক স্বাস্থ্য কেন্দ্রে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখান থেকে শক্তিনগর জেলা হাসপাতালে স্থান্তরিত করা হয়। সেখান থেকে পরে তাকে গুরুতর অবস্থায় এনআরএস স্থান্তরিত করা হয়।

রাস্তায় শারীরিক অবস্থার অবনতি হওয়ায় তাঁকে রানাঘাটের মনোরমা হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে রাতে অস্ত্র পাচার করা হয়। কিন্তু তা সত্ত্বেও সব প্রচেষ্টা ব্যর্থ করে রবিবার রাত ২ টো নাগাদ তাঁর মৃত্যু হয়।

স্থানীয় সূত্রে খবর, দুলালবাবু খুব ভালো মানুষ ছিলেন। তার মৃত্যুতে এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে। রবিবার নবদ্বীপ শ্মশানে তার শেষকৃত্য সম্পন্ন হয়।

সূত্রের খবর, পাশ্ববর্তী পোলতা গ্রামের ৮ জনের বিরুদ্ধে ধুবুলিয়া থানায় খুনের মামলা দায়ের করা হয়েছে। পুলিশ এখনও পর্যন্ত কাউকে গ্রেপ্তার করতে পারেনি। এই কারনে মানুষের মধ্যে ক্ষোভ দেখা দিয়েছে।