সানওয়ার হোসেন :- অনেকদিন তাঁর নিরাপত্তা বেষ্টনীতে তেমন রমরমা নেই। মন্ত্রী এবং মেয়রপদ ছেড়ে দেওয়ার পর একরকম নিজেকে ফ্ল্যাটবন্দিই করে রেখেছিলেন শোভন চট্টোপাধ্যায়। মাঝে মধ্যে সংবাদ শিরোনামে এলেও খুব বেশি জনসমক্ষে আসেননি। প্রাক্তন কলকাতার মেয়র শোভন চট্টোপাধ্যায় বিজেপি-তে যোগ দেওয়ার পরই পুরনো ধাঁচের নিরাপত্তাবলয় ফিরছে তাঁর পাশে। তুলনায় কম হলেও নিরাপত্তা বলয় থাকবে তাঁর বান্ধবী বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়ের পাশেও।

সূত্রের খবর, শোভন যোগ দেওয়ার পরই বিজেপির পক্ষ থেকে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকে আবেদন করা হয়। সেই আবেদন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক মঞ্জুরও করেছে বলে খবর। জানা গিয়েছে, কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের পক্ষ থেকে ইতিমধ্যেই শোভন চট্টোপাধ্যায়ের বাড়িও পরিদর্শন করে গিয়েছেন কেন্দ্রীয় বাহিনীর জওয়ানরা।

মন্ত্রী এবং মেয়র থাকার সময়ে তাঁকে জেড ক্যাটেগরির নিরাপত্তা দিত মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়-সরকার। কিন্তু প্রশাসনিক পদ ছেড়ে দেওয়ার পর তাঁর নিরাপত্তার বহরও কমিয়ে দেয় নবান্ন।

বিজেপিতে যোগদেওয়ার পর আজ, রবিবারই কলকাতায় ফিরছেন শোভন- বৈশাখী জুটি। বিজেপি সূত্রে খবর, শোভন- বৈশাখীকে বিজেপির পক্ষ থেকে বড় করে সম্বর্ধনা দেওয়া হবে। সেই সম্বর্ধনা দেবেন স্বয়ং বিজেপি রাজ্য সভাপতি তথা মেদিনীপুরের সাংসদ দিলীপ ঘোষ।

শোভনকে বিমানবন্দরে স্বাগত জানাতে বেহালা থেকেও প্রচুর অনুগামী উপস্থিত থাকবে বলে খবর। পর্যবেক্ষকদের মতে, অনুগামীদের ভিড় দেখিয়ে তৃণমলকে শোভন বার্তা দিতে চাইবেন, পার্টি বাদ দিয়েও, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ছাড়াও তাঁর নিজের একটা দাপট আছে।