নিজস্ব প্রতিনিধি, হুগলিঃ- অভিনয়ের প্রতি ভালোবাসা দীর্ঘদিনের। টলিউডের সাথে যুক্ত অভিনেতা তথা পরিচালক রাজকুমার দাস। অভিনয় করেছেন বেশ কিছু সিনেমা সহ ধারাবাহিকে। পাশাপাশি পরিচালনা করেছেন শর্ট ফিল্ম, ফিল্ম, তথ্য চিত্র, এলবাম প্রমুখ।একটানা ১২ বছর কলকাতা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে তার ছবি মনোনীত হয়ে প্রদর্শিত ও হয়েছে। তাই তার কাজের স্বীকৃতি স্বরূপ ‘এখন বন্ধুশ্রী’ সম্মানে সম্মানিত করল শেওড়াফুলি উৎসব কমিটি।

কবি সাহিত্যিক শিল্পানুরাগীদের উজ্জ্বল উপস্থিতিতে সমাজ গঠনের সদর্থক প্রত্যয়ী ভূমিকায় যারা যুক্ত তাঁদের সৃজনশীল কাজের স্বীকৃতি দিতে এই প্রয়াস বলে জানান উৎসব কমিটির সভাপতি ডাঃ সঞ্জয় সেন।অনুষ্ঠানটি যাঁদের ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় এগিয়েছে তারা হলেন সম্পাদক মানস নন্দী, সাংস্কৃতিক সম্পাদক চিরদীপ দে, প্রধান উপদেষ্টা প্রবীর কুমার পাল প্রমুখ।রবিবার উৎসবের সমাপ্তি দিনে একই মঞ্চে সম্মানিত করা হয় অভিনেতা গুড্ডু, অভিনেত্রী জয়িতা মাইতি সহ কবি অভিনেতা পলাশ পাল কে এবং বিশেষ ভাবে সম্মান জানানো হয় কবি ডাঃ তারক মজুমদার কে।

রাজকুমার দাস বলেন, কোভিড বিধি মেনে সুচারু আয়োজন সত্যি সত্যি আনন্দের। সম্মান মানুষকে উৎসাহিত করে তার কাজকে আরও এগিয়ে নিয়ে যেতে, এই সম্মান ও তাই আরও একধাপ এগিয়ে দিলো, আগামীদিনে বেশ কিছু শর্ট ফিল্ম ও ছবির কাজ করতে চলেছেন বলে ও তিনি জানান। রাজকুমার দাসের উল্লেখযোগ্য কিছু শর্ট ফিল্ম ও তথ্যচিত্রের মধ্যে উল্লেখযোগ্য নাম -“বিবাহ বিভ্রাট”, অন্তরালে, চোরাবালি, লাভ ডোনেশন, বলিদান, দা ব্লাইন্ড ভীষণ, বীর তিতুমীর, অন্তরালে বানগড়, পল্লি কবি কুমুদরঞ্জন, সাফল্য, জার্নি অব লাইফ, নীল বিষ,প্রমুখ। যা প্রতিটি ছবি দেশ বিদেশের নানান ফিল্ম ফেস্টিভ্যালে দেখানো হয়েছে। তার সম্মাননা প্রাপ্তি আরও কিছুটা হয়তো এগিয়ে যেতে সাহায্য করবে রাজকুমার দাস কে। এই শুভেচ্ছা রইলো।