মোর্তজা আহমেদ, নদিয়া :-শিক্ষারত্ন পুরস্কারে পাওয়া টাকা সহ এক লক্ষ টাকা বিদ্যালয়ে দান করলেন শিক্ষক হায়দার আলী।১৯৮৭ সালে ধুবুলিয়া দেশবন্ধু হাইস্কুলে সহশিক্ষক হিসাবে যোগ দেন নদীয়ার নাকাশিপাড়া ব্লকের প্রত্যন্ত গ্রাম শুকপুকুরের বাসিন্দা হায়দার আলি বিশ্বাস। ২০০১ সালে ওই স্কুলেই সহকারি প্রধান শিক্ষক এবং ২০০৪ সালে প্রধান শিক্ষক হিসাবে যোগ দেন।

তাঁর এই কর্মকান্ডে আনন্দিত শিক্ষক ও ছাত্র মহল। এই ঘটনার জন্য সমস্ত শ্রেণির মানুষ তাঁকে কুর্নিশ জানিয়েছে।

তিনি বলেন, “এ বিষয়ে আমার কিছুই বলার নেই।কাজটা প্রচার পাওয়ার জন্য করিনি। চুপিসারে করতে চেয়েছি। তবু দেখছি জানাজানি হয়ে গিয়েছে। সমাজের জন্য কিছু করতে পারলাম এই আনন্দ।”

এক সময় তিনি নিজে দারিদ্র্যের মধ্যে দিয়ে বড় হয়েছিলেন। সে জন্যই দরিদ্র ছাত্রছাত্রীদের কষ্টের কথা বুঝতে অসুবিধে হয়নি তাঁর। হায়দার আলি প্রকৃত মানবদরদী। মূল্যবোধ হারিয়ে যেতে
বসেছে এখন। মানুষ স্বার্থপর হয়ে যাচ্ছে
দিনে দিনে।সেই যুগে দাঁড়িয়ে তিনি এমন একজন মানুষ, যিনি অপর মানুষকে ভালোবাসতে জানেন তাঁর এই কাজে খুশি এলাকার বাসিন্দারাও।