বাবু হক, হাওড়াঃ- দক্ষিণ-পূর্ব রেলের লোকাল ট্রেন চালুর দাবিতে “নাগরিক প্রতিরোধ মঞ্চের” আহবানে- আগামী ২৫ অক্টোবর, সোমবার খড়গপুর ডিআরএম দপ্তরে বিক্ষোভ ও ডেপুটেশন। সেই কর্মসূচি সফল করতে ২২শে অক্টোবর বাগনান শহরে প্রচার অভিযান সংঘটিত হয়। এই প্রচার সভায় বক্তব্য রাখেন- নাগরিক প্রতিরোধ মঞ্চের পক্ষে সরোজ মাইতি, অপূর্ব পাল প্রমুখ। এছাড়া উপস্থিত ছিলেন সীমন্ত ধাড়া, মিনতি সরকার, নিখিল বেরা সহ নাগরিক মঞ্চের বিভিন্ন স্টেশনের নেতৃবৃন্দ।

বক্তারা বলেন, স্টাফ স্পেশাল চললেও সরকারি চাকরিজীবী ছাড়া সাধারণের সে ট্রেনে ওঠার উপায় নেই। যে সব মানুষকে পেটের ভাত জোগাড় করতে প্রতিদিন ট্রেনে বাসে করে যেতে হয় তাদের অবস্থা দিনদিন অত্যন্ত খারাপ হচ্ছে । এমনিতেই অনেকেই রুজি-রোজগার হারিয়েছে তার ওপর পরিবহন ব্যবস্থা স্বাভাবিক না হওয়ায় তারা আরো সংকটে পড়েছে। নিরুপায় মানুষ ট্রেনে বিনা টিকিটে উঠতে বাধ্য হলে রেলকর্মীরা ফাইন করছে। এমতাবস্থায় অবিলম্বে স্বাস্থ্যবিধি মেনে সমস্ত লোকাল ট্রেন চালু করা জরুরী।

যতদিন তা না করা হচ্ছে ততদিন শিয়ালদা, বর্ধমান রুটের মতো দক্ষিণ-পূর্ব রেলের যাত্রীদের টিকিট দেওয়ার যাবি দীর্ঘদিন অনেকেই জানিয়ে আসছে। কিন্তু রাজ্য সরকার করোণা সংক্রমণ বৃদ্ধির অজুহাতে লোকাল ট্রেন চালু করছে না। আপনারা লক্ষ্য করছেন, এখন বিভিন্ন সভা, ধর্মীয় অনুষ্ঠান, বাজার হাট, ব্যাঙ্ক সহ সমস্ত অফিস খোলা। তাহলে লোকাল ট্রেন চালু করার ক্ষেত্রে বিধি- নিষেধ থাকছে কেন? ইতিপূর্বে বিভিন্ন স্টেশন ম্যানেজারকে এমন কি ডি আর এম- এর নিকট বিভিন্নভাবে এই বিষয়টি অবগত করা হয়েছে।

কিন্তু ইতিবাচক কোনো পদক্ষেপ গৃহীত হয়নি। তাই আগামী ২৫ অক্টোবর সোমবার খড়গপুরে দক্ষিণ-পূর্ব রেলের প্রধান দপ্তর ডি আর এম এর কাছে নাগরিক প্রতিরোধ মঞ্চের পক্ষ থেকে বিক্ষোভ ডেপুটেশনের কর্মসূচি নেওয়া হয়েছে। এরপরেও ট্রেন চালু না হলে প্রয়োজনে রেললাইন অবরোধ করা হবে বলে বক্তারা হুঁশিয়ারি দেন।