নিজস্ব সংবাদদাতা, বসিরহাটঃ- স্বাধীনতার প্রাক্কালে সীমান্তে ও জলপথে নিরাপত্তার চাদরে মুড়ে ফেলা হ’ল উওর ২৪ পরগণা জেলার বসিরহাট মহকুমার স্বরুপনগর হাকিমপুর সীমান্ত থেকে হিঙ্গলগঞ্জ সামশেনগর সীমান্ত পর্যন্ত ২২২, কিলোমিটার। তার মধ্য সীমান্ত স্থলভাগ রয়েছে১৫৬ কিলোমিটার, ৬৬ কিলোমিটার জল সীমান্ত। একদিকে সুন্দরবনের জল পথ রয়েছে অন্যদিকে স্থল সীমান্ত রয়েছে বসিরহাট মহকুমা সীমান্ত লাগোয়া স্বরূপনগর, বাদুড়িয়া, বসিরহাট, হাসনাবাদ, টাকি, হিঙ্গলগঞ্জ ব্লক গুলোতে সকাল থেকে নজরদারি শুরু করেছে।

সীমান্তরক্ষী বাহিনী ও পুলিশ, শনিবার সকাল থেকে ইছামতি সেতু, বনবিবি সেতু, কাটাখাল সেতু, মালঞ্চ সেতু, পুলিশ ও বিএসএফের যৌথ তল্লাশি শুরু করল।

একদিকে সীমান্ত আঁটোসাঁটো অন্যদিকে সুন্দরবনের জলপথে পেট্রোলিং শুরু হয়েছে। রাত পোহালেই ৭৫ তম স্বাধীনতা দিবস । রাজ্য প্রশাসন ও সীমান্তরক্ষী বাহিনী নিরাপত্তা খামতি রাখতে চাইছে না। তার আগেই সীমান্ত সুরক্ষার নজরদারি বাড়াচ্ছে। সীমান্তরক্ষী বাহিনী সকাল থেকে অতিরিক্ত বাহিনী মোতায়েন করে সীমান্ত কঠোর নজরদারি শুরু করেছে। সব মিলিয়ে কোনরকম নাশকতার ছক যাতে না হয় তার জন্য সব রকম প্রস্তুতি নিয়েছে সীমান্তরক্ষী বাহিনী ও পুলিশ।

বসিরহাট পুলিশ জেলার ট্রাফিক ওসি সুশান্ত দাস তিনি বলেন, সরকারি নির্দেশ অনুসারে ১৩ তারিখ থেকে ২২ তারিখ পর্যন্ত, বসিরহাট মহকুমা জুড়ে নিরাপত্তার চাদরে মুড়ে ফেলা হয়েছে। স্বাধীনতার প্রাক্কালে মানুষ যাতে সুস্থ ভাবে চলাফেরা করতে পারে সেদিকে নজর দেয়া হয়েছে প্রশাসনের পক্ষ থেকে।