সুজয় মন্ডল, বসিরহাট :- রাত পোহালেই শেষ দফার ভোট। লোকসভা নির্বাচনের সপ্তম দফায় বসিরহাট লোকসভা কেন্দ্রের ১২৬(এস সি ) হিঙ্গলগঞ্জ বিধানসভা ক্ষেত্র সহ সন্দেশখালি এবং সুন্দরবন লাগোয়া ব্লক গুলোতে সকাল সকাল নদীপথে ইভিএম নিয়ে রওনা দিলেন ভোট কর্মীরা। বসিরহাট লোকসভা ক্ষেত্রের অধীন হিঙ্গলগঞ্জ বিধানসভার অন্তর্গত প্রত্যন্ত সুন্দরবনের বিভিন্ন ভোট কেন্দ্রে পৌঁছাতে নদী নালা ও নানান প্রতিবন্ধকতার সম্মুখীন হতে হয় ভোট কর্মীদের। তাই এই সমস্যার কথা মাথায় রেখে সকাল সকাল পাড়ি দিলেন ভোট কর্মীরা । বসিরহাট লোকসভা কেন্দ্রে এবার নোটা সহ মোট ১৪ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।এই বসিরহাট লোকসভা কেন্দ্রের একটা বিস্তৃত অংশই ছোট ছোট দ্বীপ নিয়ে গঠিত এবং এইগুলি নদীমাতৃক এলাকা হওয়ায় ভোট কর্মীরা সকাল সকাল রওনা দিয়েছেন। সুন্দরবনের প্রান্তিক এলাকার ছোট বড় গ্রামগুলিত সন্ধ্যার সময় অধিকাংশ সময় একটু জোরে হাওয়া হলেই কারেন্টের লোডশেডিংয়ের প্রবণতা দেখা দেয়। নানা অসুবিধা ও প্রতিবন্ধকতা মাথায় নিয়ে তাই ভোট কর্মীরা পাড়ি দিলেন সুন্দরবন অঞ্চলের ঐ সমস্ত প্রত্যন্ত এলাকা গুলিতে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক ভোট কর্মী বলেন, সুন্দরবন একটি অত্যন্ত প্রত্যন্ত এলাকা ঠিকই তবে তা বরাবরই আকর্ষণের জায়গা ।বাঘের ভয় আছে ঠিকই তবে সুন্দর বনে এর আগে না এলেও ভোটের উৎসবে এমন জায়গাটি স্পর্শ করে যাওয়া ও সৌভাগ্যের ব্যাপার । ভয়ার্ত পরিবেশের মধ্যে ভোট করতে হলেও সব মিলিয়ে একটা নতুন অভিজ্ঞতা হবে আশা করছি।