নিজস্ব সংবাদদাতা, দক্ষিণ ২৪ পরগনা :- দক্ষিণ ২৪ পরগনার মহেশতলা থানা ররিয়ায় বাটানগর হাইরোডে গতকাল রাত সাড়ে দশটা নাগাদ এক ব্যক্তিকে রক্তাক্ত অবস্থায় দেখতে পায় স্থানীয়রা। তাকে চিনতে পেরে বাড়িতে খবর দেওয়া হয়। ততক্ষনে মহেশতলা থানার পুলিশ পৌঁছে ওই রক্তাক্ত ব্যক্তিকে উদ্ধার করে বেহালা বিদ্যাসাগর হাসপাতালে পাঠালে চিকিৎসকরা তাকে মৃত বলে মত ঘোষণা করেন। ওই ব্যক্তির মাথার পিছনে আঘাতের চিহ্ন দেখতে পাওয়া যায়। পুলিশ সূত্রে জানা যায়, ওই ব্যক্তির নাম অনন্ত বিশ্বাস বয়স আনুমানিক ৪৫। মহেশতলা পৌরসভার ৩৩ নম্বর ওয়ার্ড, এর বাটানগর ১ নম্বর গেটের বাসিন্দা। পরিবারে তিন পুত্র ও স্ত্রীকে নিয়ে থাকতেন। বাটা কোম্পানিতে ঠিকা শ্রমিকের কাজ করে সংসার চালাতেন। কিন্তু কিভাবে তার মৃত্যু হল তা নিয়ে সকলের মধ্যে ধোয়াসা রয়েছে। স্থানীয় দের ধারণা পথচলতি কোনও গাড়ি অনন্ত বাবু কে ধাক্কা মেরে পালিয়ে গিয়েছে। মহেশতলা থানার পুলিশ সিসি টিভির ফুটেজ খতিয়ে দেখছেন, কোনো গাড়িকে চিন্নিত করা যায় কিনা। আজ ময়নাতদন্তের পর মৃত দেহ পরিবারের হাতে তুলে দেয়া হবে বলে জানান পুলিশ। এখনও পর্যন্ত পরিবারের কেউ কোনো অভিযোগ জানাননি থানাতে। কারন তারাও মনে করছেন দুর্ঘটনা জনিত কারণে অনন্ত বাবুর মৃত্যু হতে পারে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

6 + 10 =