অলোক আচার্য, খড়দহ :- রক্তদাতারা বীর যোদ্ধা। রক্তদান নিসন্দেহে মহান কাজ। এক ফোঁটা রক্তের দানে মুমুর্ষ মানুষের প্রান বাচেঁ। রক্তদাতারা বীর সৈনিক। কথাগুলি বলেন এভারেস্ট জয়ী সুনীতা হাজরা। রবিবার যুগবেড়িয়া জোড়া পুকুর বটতলা প্রাঙ্গণে বিলকান্দা ১নং গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রাক্তন পঞ্চায়েত সদস্য গোবিন্দ মন্ডলের ব্যবস্হাপনায় ও রন্তিম সমাজসেবী সংগঠনের পরিচালনায় ১৩তম বর্ষের রক্তদান শিবিরে উপস্হিত হয়ে রক্তদাতাদের উৎসাহিত করে কথাগুলি বলেন এভারেস্ট জয়ী সুনীতা হাজরা।

২০১৬ সালের এভারেস্ট অভিযানে সফল রুপায়নে তিনি তাঁর অভিজ্ঞতার কথা তুলে ধরেন। বলেন মানবিকতার বড় কাজ রক্তদান। সামাজিক দায়বদ্ধতা পালনে ধারাবাহিক ভাবে এই শিবির করা জরুরী। বর্তমান সময়ে শারীরিকভাবে সুস্থ থাকাটা এখন বড় চ্যালেঞ্জ। এছাড়াও উপস্হিত ছিলেন কার্গিল যুদ্ধে বিএস এফ জওয়ান সুকান্ত ঘোষাল, ব্যারাকপুর ২ নং পঞ্চায়েত সমিতির কর্মাধ্যক্ষ প্রবীর রাজবংশী, পঞ্চায়েত সদস্য শেখ দীন মহম্মদ, সমীর গুহ, সমাজসেবী গনেশ বন্দোপাধ্যায় সহ এলাকার বিশিষ্ট জনেরা।

১৯৯৯ সালে কার্গিল যুদ্ধে বহু সৈনিক অঙ্গহানি হয়েছে। তিনি তাঁর অভিজ্ঞতার কথা তুলে ধরে বলেন আমাকে বাচাতেঁ ২৮বোতল রক্ত দিতে হয়েছে। সেইসব রক্তদাতাদের শ্রদ্ধা জানাই। পশ্চিমবঙ্গ সেন্ট্রাল ব্লাড ব্যাঙ্কের সহযোগিতায় শিবিরে ৪৬জন রক্তদান করেন। সমগ্র অনুষ্ঠানটি সুষ্ঠুভাবে পরিচালনা করেন রক্তিম সমাজসেবী সংগঠনের কর্ণধার গোবিন্দ মন্ডল। এলাকায় স্হানীয় মানুষের উৎসাহ উদ্দীপনা ছিল লক্ষ্যনীয়। খড়দহ ব্লক তৃণমৃল যুব কংগ্রেসের সভাপতি তথা জেলা তৃণমৃল কংগ্রেসের লড়াকু নেতা প্রবীর রাজবংশী বলেন খুব ভালো লাগছে সুন্দর একটি সামাজিক অনুষ্ঠানে দুই মহান মানুষের উপস্হিতি রক্তদাতাদের রক্তদানে উৎসাহিত হয়েছেন। প্রাক্তন পঞ্চায়েত সদস্য গোবিন্দ মন্ডলের উদ্যোগ কে সাধুবাদ জানাই। শিবির থেকে শপথ নেবো রক্তের অভাবে কাউকে মরতে হবেনা।