মোটর বাইক থাকায় মাঝ পথে মিছিল আটকে দেয় পুলিশ, কর্মীদের নিয়ে প্রায় ৫ কি.মি পায়ে হেঁটেই ভোটের প্রচার সাড়লেন বিজেপি প্রার্থী সায়ন্তন বসু

0
Advertisement

সুজয় মন্ডল, বসিরহাট :-  শনিবার সকালে বসিরহাট মহকুমার হাড়োয়া থানার কেন্দুয়া বাজার থেকে হুডখোলা গাড়িতে করে প্রচার শুরু করেন বসিরহাট লোকসভা বিজেপি প্রার্থী সায়ন্তন বসু। মিছিল শুরু হওয়ার পরে মাত্র এক কিলোমিটারের মাথায় মিছিল আটকে দেয় হাড়োয়া থানার পুলিশ। জানা যায় , চারচাকা গাড়িতে চেপে মিছিলের জন্য আগেই পুলিশের কাছ থেকে অনুমতি নেয় বিজেপির স্থানীয় নেতৃত্ব। সেইমতো এদিন হুডখোলা গাড়িতে করে প্রচার শুরু করেন বিজেপি প্রার্থী। বিজেপি প্রার্থীর চারচাকা গাড়িতে চেপে প্রচার মিছিলের গতি বজায় রাখতে মোটর বাইক নিয়ে কিছু কর্মী যোগ দেন মিছিলে। আর তাই মোটর বাইক মিছিল করার অভিযোগে মাঝপথেই মিছিল আটকে দেয় পুলিশ। পুলিশের বাধার মুখে গাড়ি থেকে নেমে আসেন সায়ন্তন বসু। মোটর বাইক মিছিলে পুলিশ আপত্তি জানানোয় কর্মীদের নিয়ে পায়ে হেঁটেই মিছিল শুরু করেন তিনি।

প্রায় ৫ কিলোমিটার রাস্তা পায়ে হেঁটে ভোট প্রচার করতে করতে পৌঁছান হাড়োয়া শহরে। হাড়োয়া থানা থেকে ঢিলছোড়া দূরত্বে রাস্তার উপরে কাঠের টুল এর উপরে দাঁড়িয়ে পথসভা করেন সায়ন্তন বসু। বিজেপির মিছিল আটকানোর বিষয়ে প্রতিক্রিয়া দিতে গিয়ে সায়ন্তন বসু বলেন, ” আগের দিন সন্দেশখালিতে আমাদের আটকাতে ভ্যান চলাচল বন্ধ করে দিয়েছিল তৃণমূল। সেখানেও পায়ে হেঁটে মিছিল করতে হয়েছে আমাদের। আর তাই যেখানেই গাড়ি আটকাবে সেখানেই পায়ে হেঁটে মিছিল করব আর পায়ে হেঁটে মিছিল আটকালে সেখানেই ধর্নায় বসবো”। প্রসঙ্গত গত দুদিন আগেই স্বরূপনগর সীমান্তে মোটর বাইক মিছিলে দেখা যায় বনগাঁর তৃণমূল প্রার্থী মমতা বালা ঠাকুরকে। সেই প্রসঙ্গে উল্লেখ করে সায়ন্তন বসু পথসভা থেকে বলেন, ” বসিরহাটের সমস্ত এলাকায় তৃণমূলের বাইক বাহিনী বিজেপি কর্মীদের হুমকি দিচ্ছে, বিজেপির ব্যানার , ফেস্টুন ছিড়ে দিচ্ছে। তার বিরুদ্ধে পুলিশের কাছে অভিযোগ জানাতে চাই। যদি পুলিশ এর বিরুদ্ধে কোন পদক্ষেপ না নেয় তাহলে পুলিশের বিরুদ্ধে নির্বাচন কমিশনের কাছে অভিযোগ জানাবো আমরা”।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

1 × five =