অলোক আচার্য, বিরাটীঃ- মেয়েরা স্বাবলম্বী হলে অনেক বেশি কাজ করতে পারবে। তাদের স্বয়ম্ভর ভাবে প্রতিষ্ঠিত করা আশু কর্তব্য। আর সেই কাজটাই করছেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। অর্থনৈতিক ভাবে প্রতিষ্ঠিত করা। স্বয়ংসিদ্ধা নামটা মুখ্যমন্ত্রীর দেওয়া। স্বনির্ভরতার পথে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার মূল লক্ষ্য। সেই কাজটাই করছেন। মহিলাদের এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে চলেছেন। মহিলাদের হাতে তৈরি নতুন নতুন জিনিস তৈরি করে বাজার তৈরি করে দেওয়ার কত উদ্ভাবনী শক্তি দিয়ে নতুন নতুন জিনিস তৈরী করে বাজার তৈরি করে স্বাবলম্বী করতে এই স্বয়ংসিদ্ধা মেলার আয়োজন। স্বনির্ভর করে মেয়েদের অনুপ্রাণিত করে বাজার তৈরি করবার জন্য এই স্বয়ংসিদ্ধা মেলা। যোগ্য মর্যাদা ও তাদের অধিকার পাইয়ে দিতে ই সুডার ব্যবস্থাপনায় এই উদ্যোগ। একটি ইতিবাচক দিক। শুধু মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় মেয়েদের কথা ভাবেন বলেই মেয়েরা স্বাবলম্বী হয়ে এগিয়ে চলেছে। মেয়েরা এগিয়ে যাচ্ছে। সরকারি পৃষ্ঠপোষকতায় মেয়েরা যথার্থ স্বাবলম্বী হয়ে সকলকে নিয়ে এগিয়ে চলেছে স্বনির্ভর হয়ে।

বুধবার বিকেলে রাজ্য নগর উন্নয়ন সংস্থার তত্ত্বাবধানে উত্তর দমদম পুরসভার উদ্যোগে বিরাটী এপিসি রায় রোডে সুভাষ উদ্যানে জেলা স্বয়ংসিদ্ধা মেলার শুভ উদ্বোধন একথা গুলি বলেন রাজ্যের পুর ও নগরোন্নয়ন দফতরের মন্ত্রী চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য।

তিনি বলেন, উত্তর দমদম পুরসভার সব সময় মানুষের পাশে এসে থেকেছে। উত্তর দমদমের মানুষ সমবেদনশীল সবকিছুতে সচেতন। স্বয়ম্ভর ভাবে স্বনির্ভর ভাবে বাজার তৈরির জন্য এই স্বয়ংসিদ্ধা মেলা। ২৬ টি পৌরসভা দুটি ভাগে করছে। একটি কামারহাটি তে ১৩ টি পুরসভা মিলে করেছে। বাকি ১৩ টি উত্তর দমদম পুরসভার হচ্ছে। সারা ভারতবর্ষে নিদর্শন ও দৃষ্টান্ত হচ্ছে জিডিপি সরকারের তথ্য পরিসংখ্যানে। মাইক্রো ইকনমিক পলিশি। সুডার দেওয়া তথ্য মেয়ে দের হাতে টাকা আসছে। অর্থনৈতিক ভাবে স্বাবলম্বী হচ্ছে মহিলারা।

উপস্থিত ছিলেন সাংসদ সৌগত রায়, উত্তর দমদম পুরসভার মুখ্য প্রশাসক বিধান বিশ্বাস, নববারাকপুর পুরসভার মুখ্য প্রশাসক প্রবীর সাহা, রাজ্যের সুডার আধিকারিক সাওন সেন, উত্তর দমদম পুরসভার উপ মুখ্য প্রশাসক কল্যাণ কর সহ প্রশাসক মন্ডলীর সদস্য রা।স্বনির্ভর গোষ্ঠী এবং স্বনিযুক্ত উদ্যোগীদের তৈরী সামগ্রীর প্রদর্শনী ও বিপণন। প্রতিদিন দুপুর ২টো থেকে রাত্রি ৮টা পর্যন্ত মেলা খোলা থাকবে। ১৯ ডিসেম্বর রবিবার পর্যন্ত চলবে।