অলোক আচার্য, নিউ বারাকপুরঃ- নতুন কলেবরে নিউ বারাকপুর পুরসভার হাসপাতালকে গড়ে তোলা হবে বলেন রাজ্যের পুর ও নগরোন্নয়ন দফতরের মন্ত্রী চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য। পুর এলাকার নাগরিকরা স্বাস্থ্য পরিষেবা নিয়ে অত্যন্ত সচেতন ।গত বছর করোনা অতিমারি রুখতে লকডাউনের সময় শহরে চারিদিকে ব্যারিকেড করে বন্ধ করেছিল। ছোট শহর। কিন্তু সুস্থ শহর। নবরুপে নিউ বারাকপুর কে মডেল পুরসভার গড়ে তোলা হবে বলেন মন্ত্রী। পুরসভা বিশেষ আঙ্গিকে স্বাস্থ্য পরিষেবা নজর দেন। যখন জরুরি অক্সিজেন লাগবে বা সেফ হোমে রোগী কে অক্সিজেন সাপোর্ট দিয়ে সুস্থ করে তুলতে হবে ঠিক সেই সময়ে কোভিড প্রোটোকল মেনে পুর এলাকার ক্লাব সংগঠন গুলি এগিয়ে এসে মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে বিনামূল্যে দুয়ারে অক্সিজেন পরিষেবা দিচ্ছে এই সঙ্কটকালে ।এটা একটা ইতিবাচক দিক।

মঙ্গলবার সন্ধ্যায় নিউ বারাকপুর পুরসভার ১৭ নং ওয়ার্ডের কোঅর্ডিনেটর নিখিল মালো র ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় পূর্ব কোদালিয়া স্পোর্টিং ক্লাব ও আনন্দপল্লী কাঠালতলা অধিবাসীবৃন্দের যৌথ উদ্যোগে ২৪ ঘন্টার চালু হওয়ার দুয়ারে অক্সিজেন পরিষেবা উদ্বোধন এসে কথাগুলি বলেন রাজ্যের স্বাস্থ্য ও পুর ও নগরোন্নয়ন মন্ত্রী চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য।

তিনি বলেন, এলাকার মানুষ বিধায়ক হিসেবে নির্বাচিত করেছেন সম্মান দিয়েছেন। রাজ্যের বিশেষ গুরুত্বপূর্ণ দপ্তর পুর ও নগরোন্নয়ন দফতরের মন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেই দায়িত্ব পালনে সর্বদাই মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে পরিষেবা দেওয়াই আমার কাজ। আমি যে কথা বলি সব সময় কথা রাখার চেষ্টা করি। মডেল বিধানসভা করব।পুরসভার হাসপাতালে লাগোয়া সাড়ে তিন কাঠা জায়গায় মাতৃসদনকে নতুন ভাবে আধুনিকিকরন করে পরিকল্পনা রয়েছে। আমি নব বারাকপুর বাসীর পাশে আগে ও ছিলাম এখন নিবার্চিত জন প্রতিনিধি হিসেবে ও পাশে থাকব। দুটি শহর নব বারাকপুর ও উত্তর দমদম। নবরুপে দিতে যা যা করার ঠিক ঠিক ভাবে করব। মন্ত্রী যাবে পুরসভার দুয়ারে। পুরসভার পরিষেবা উন্নয়নে পরিকাঠামো নিয়ে সপ্তাহের কাজের দিন দেখে একদিন বা দুদিন যাওয়া হবে পুরসভা গুলিতে। পুরসভা কে মন্ত্রীর কাছে যেতে হবে না। মন্ত্রীই যাবে পুরসভায়। ব্যারাকপুর মহকুমার পুরসভা গুলিতে নতুন ভাবে মাস্টার প্ল্যান করা হবে। ব্যারাকপুর টিটাগড় পুরসভার চেয়ারম্যান প্রশাসক মন্ডলীর সদস্য দের সাথে এলাকার সমস্যা নিয়ে বৈঠক করা হয়েছে। সার্বিক ভাবে কিছু করার চেষ্টা করছি। ইতিমধ্যেই উত্তর দমদম পুরসভায় নগর উন্নয়ন দপ্তরের আধিকারিক চিফ সেক্রেটারি স্পেশাল অফিসার রা গিয়ে এলাকার উন্নয়ন ত্বরান্বিত করবার বৈঠক করেছেন। নতুন পরিকল্পনা নিয়ে আলোচনা হয়েছে। ঠিক একই ভাবে নিউ বারাকপুর পুরসভার নগর উন্নয়ন দপ্তরের স্পেশাল সেক্রেটারি সচিব রা পুরসভার প্রশাসক মন্ডলীর সদস্য দের সাথে বৈঠক করে শহরের সার্বিক উন্নয়ন পরিকল্পনা করবেন। সবাই মিলে সমন্বয় করে এলাকায় মডেল হিসেবে গঠন করব ‍‌‍‍পুরসভাকে বলেন মন্ত্রী।

কেন্দ্রীয় সরকারের ২১ জুন থেকে ১৮-৪৪ বছর বয়সীদের বিনামূল্যে ভ্যাকসিন দেওয়া নিয়ে মোদী কে তীব্র ভাষায় সমালোচনা করে মন্ত্রী জানান, উনি তো বলেছেন, ৭৫% ভ‍্যাকসিন সরকারি ভাবে দেওয়া হবে, আর ২৫%দেওয়া হবে প্রাইভেট ভাবে। কিন্তু ১০০% ভ‍্যাকসিনের পরিমাণ কতটা সেটা তো উনি স্পষ্ট করে বলছেন না।

উনি বলেছেন ১৩০কোটিকে ভ‍্যাকসিন দেওয়া হবে, কিন্তু ভ‍্যাকসিন উৎপাদন যদি ২০কোটি হয়, তাহলে তো চলবে না! রাজ‍্য সরকারের হাত থেকে ভ‍্যাকসিন ক্রয় করার ক্ষমতাটাও উনি কেড়ে নিয়েছেন। এই ভ‍্যাকসিন দেওয়ার পদক্ষেপ নাকি মুখের খেপ । আসলে পরিকল্পনা কত দিনে বাস্তবায়িত হবে, মন্ত্রী সে বিষয়ে সংশয় প্রকাশ করেন এদিন। ভালো হলে ভালো। ১ মে থেকে তো সবাইকে ভ‍্যাকসিন দেওয়ার কথা ছিল। এসব‌ই নির্বাচনের আগে বলেছিলেন। আর এখন কাউকেই দেখা যাচ্ছে না। আগামী দিনে ও লড়াই চলবে। নেত্রীর নাম মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। লড়াই টা জানেন কি করে লড়তে হয়। করোনা হারবে বাংলা জিতবে এই বিষয়ে কোন সন্দেহ নেই বলেন মন্ত্রী চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য। করোনা সংক্রমণ অনেক কমেছে। শূন্য করতে হবে। এত মৃত্যু ছিল না।

উপস্থিত ছিলেন পুরসভার মুখ্য প্রশাসক তৃপ্তি মজুমদার, প্রাক্তন পুরপিতা সুখেন মজুমদার, পুরসভার প্রশাসক মন্ডলীর সদস্য মিহির দে, ডাঃ পংকজ কুমার অধিকারী, জেলা স্বাস্থ্য দফতরের আধিকারিক সঞ্জয় বোস, কোঅর্ডিনেটর মনোজ কুমার সরকার ও সমাজসেবী সুমন দে সহ দুটি ক্লাবের কর্মকর্তারা। তিনটে ১০কেজি ও একটি ১৫ কেজি সিলিন্ডার নিয়ে সংঘের সদস্যরা বিনামূল্যে বাড়ি বাড়ি আপৎকালীন অক্সিজেন পরিষেবা পৌঁছে দেবেন বলে জানান হয় এদিন। স্হানীয় আগমনী মহিলাদের সংগঠনের পক্ষ থেকে সেফ হোমে উন্নয়নের পাঁচ হাজার টাকা ও বরিষ্ঠ পেনশনহোল্ডার রনজিৎ রায় ব্যক্তিগত সঞ্চয় থেক দু হাজার টাকা অনুদান তুলে দেন মন্ত্রী ও মুখ্য প্রশাসক তৃপ্তি মজুমদারের হাতে। উপস্থিত ছিলেন এলাকার বরিষ্ঠ মানুষেরা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

ten − seven =