অলোক আচার্য, মধ্যমগ্রামঃ- মধ্যমগ্রাম সৃষ্টির পথে স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন। ছোট শিশু কিশোর থেকে সমাজের পিছিয়ে পড়া দুঃস্থ মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে তাদের স্বাবলম্বী থেকে নানাবিধ কর্মকান্ডে এক নজির স্থাপন করে চলেছে। করোনা অতিমারি থেকে আম্ফান ঝড়ের তান্ডবে মধ্যমগ্রাম সৃষ্টির পথে সংগঠন জীবনের ঝুঁকি নিয়ে মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে সাধ্যমতো খাদ্যসামগ্রী জামাকাপড় পৌছে দিয়েছিল জেলা জুড়ে। রবিবার সংস্থার সপ্তম বার্ষিক অনুষ্ঠান। আব্দালপুর অবৈতনিক প্রাথমিক বিদ্যালয়ে মধ্যমগ্রাম সৃষ্টির পথে শিক্ষক দিবস উপলক্ষে বাৎসরিক অনুষ্ঠান হ’ল সাড়ম্বরে। সারা বছর ধরে সংস্থা শিশু সুরক্ষা নিয়ে কাজ করে চলেছে। এলাকায় অনেক স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা এবং সমাজসেবী সাধ্যমতো কাজ করছে সৃষ্টির পথকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য উৎসাহ দেওয়ার জন্য।

রবিবার মঞ্চ থেকে সেইসব সমাজসেবী সংগঠন ও সংগঠকদের সম্মানিত করা হয় গাছ, ফুল উত্তরীয় ও স্মারক দিয়ে। উপস্থিত ছিলেন পশ্চিমবঙ্গের খাদ্যমন্ত্রী রথীন ঘোষ, মধ্যমগ্রাম পুরসভার পুর প্রশাসক নিমাই ঘোষ। বিশিষ্ট চিকিৎসক ডাঃ ঐন্দ্রিল ভৌমিক, কুমারী সর্জনা বিশ্বাস সমাজ কন্যা লাভ উইথআউট বাউন্ডারিস , ইন্ডিয়ার ডিরেক্টর এছাড়া উপস্থিত ছিল প্রমা পাল, নিজস্বী মিত্র তারা ইন্ডিয়া বুক অব রেকর্ডসে ২০২১ সালে বিশেষ প্রতিভার পুরস্কার পেয়েছে।

এছাড়াও মধ্যমগ্রাম থানার ভারপ্রাপ্ত আধিকারিক পিনাকী রায় , ড: জয়ন্ত সাহা , হাটখোলা মেডিকেল ব্যাংকের কর্ণধার সমাজসেবী ডি. আশিস , সমাজসেবী মিহির দাশগুপ্ত, মধ্যমগ্রাম পৌরসভার ৭ নম্বর ওয়ার্ডের কোঅর্ডিনেটর পংকজ কান্তি চন্দ্র, সংগীত শিল্পী তনয়া ঘোষ সহ আরো বিশিষ্ট ব্যক্তিগণ। সপ্তম বার্ষিক অনুষ্ঠানে স্বাস্থ্য পরীক্ষা শিবির ও চক্ষু পরীক্ষা শিবির, ওয়েব সাইট উদ্বোধন, শিশু সুরক্ষা প্রচার ভ্যান, রক্তদান শিবির এবং সংস্থার নতুন অফিস ঘর দিবানিক কক্ষ উদ্বোধন হয়। এর সাথে ছিল শিশুদের টিফিন ও দুপুরের আহার । সংস্থার শিশুদের দ্বারা সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও সচেতনতা বৃদ্ধির নাটক অনুষ্ঠান মঞ্চে মঞ্চস্থ হয়।

সংস্থার কর্নধার সমাজসেবী নূপুর ঘোষ ও বাপি বিশ্বাস জানান, এলাকার সমস্ত মানুষের সহযোগিতা এবং সদস্য-সদস্যাদের আন্তরিকতায় বার্ষিক এই অনুষ্ঠানটি সম্পন্ন করতে পেরেছি।তৎসহ এদিন আমার দীর্ঘ পথ চলার সাথে আমার মমতাময়ী মাকে মঞ্চে সম্বর্ধনা জানাতে পেরে আমি নিজে খুব গর্ববোধ করছি।ছোট শিশু কিশোর দের একরাশ আনন্দ গান আলোচনা সংবর্ধনা সৃষ্টির উল্লাসে পথকে আরও একধাপ এগিয়ে রাখল নিঃসন্দেহে।