সানওয়ার হোসেন, মগরা হাট :– মাটি মাফিয়াদের দৌরাত্মে অতিষ্ট দক্ষিণ চব্বিশ পরগনার মগরাহাট থানার হরিশংকরপুরের বাসিন্দদের অভিযোগ দীর্ঘদিন ধরেই এখানে কয়েকজন প্রমোটার মিলে চাষের জমির দখল নিয়ে দেদার মাটি কেটে তা বিক্রি করে দিচ্ছে ।শুধু তাই নয় এদের এই যত্রতত্র জমির মাটি কাটার ফলে চাষযোগ‍্য জমির ব‍্যাপক ক্ষতি হচ্ছে।যার দরুন আগামী দিনে এই এলাকায় বিঘের পর বিঘে জমির চাষবাস তো নষ্ট হচ্ছেই উপরন্ত অনিয়ন্ত্রিতভাবে জমির মাটি কেটে নেওয়ার ফলে রাস্তাও ভাঙনের মুখে পড়েছে। এদিন এই অঞ্চলের পরিদর্শনে গিয়ে গ্রামবাসীদের ক্ষোভের আঁচ চোখে পড়লো।গ্রামের প্রায় শদুয়েক পরিবার সংবাদ মাধ‍্যমের লোক দেখে সাহস করে এগিয়ে এসে নিজেদর ক্ষোভ উগরে দিয়ে বলেন,এখানে প্রকাশ‍্য দিবালোকেই মাটি মাফিয়ারা এই কাজ করছে।তাদের বক্তব‍্য অন‍্যায়ভাবে চাষযোগ‍্য জমির মাটি কেটে বিক্রি করা থেকে পুকুর ভরাট,এমনকি খালের রাস্তা বন্ধ করে আস্ত খালটাও বুজিয়ে দেওয়ার চেষ্টা চলছে।যা নিয়ে ঐ গ্রামের আবাল বৃদ্ধ বনিতা পুরুষ মহিলা সবাই এর জন‍্য দুষলেন স্হানিয় পঞ্চায়েত প্রধান থেকে বিডিও ও স্হানীয় মগরাহাট থানার ওসিকে।স্হানীয় বিজেপির পঞ্চায়েত সদস‍্যর বক্তব‍্য আমাকে এই অঞ্চলের মানুষ নির্বাচিত করেছেন তাদের এই সমস‍্যার সুরাহা করার জন‍্য।যেখানে তারও অভিযোগ স্হানীয় তৃণমুলের সদস‍্য অনিমেষ রাহা এই ঘটনায় প্রত‍্যক্ষ মদত যোগাচ্ছেন যার পিছনে কাটমানি খাওয়ার অভিযোগ তারা তুলছেন।যদিও এব‍্যাপারে স্হানীয় মগরাহাট থানার ওসি কোন প্রতিক্রিয়া দিতে না চাইলেও বিডিও বলেন খুব শীঘ্রই তারা এর সমাধান করবেন। প্রশ্ন হলো এভাবে চাষের জমি নষ্ট করে দিনের পর দিন কিভাবে মাটি কেটে তা বিক্রি করা হচ্ছে তাই নিয়ে পুলিশ প্রশাসনের আশ্চর্ষরকম নীরবতা সম্পর্কে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

17 − 5 =