অলোক আচার্য, ব্যারাকপুরঃ- ফের বোমাবাজির ঘটনায় উত্তেজনা ছড়াল পানিহাটি বিধানসভার ঘোলা চন্ডীতলা এলাকায়। পানিহাটি বিধানসভার বাসিন্দা তৃণমূল কর্মী পরেশ দাস পেশায় অটোচালক সোমবার রাতে তার গাড়িটি রেখে পায়ে হেঁটে বাড়ি যাচ্ছিল সেই সময় তাকে লক্ষ্য করে বোমা ছোড়ার অভিযোগ বিজেপি আশ্রিত দুষ্কৃতীদের বিরুদ্ধে। এই ঘটনায় গুরুতর আহত হয় পরেশ দাস নামে ওই তৃণমূল কর্মী। এরপর তাকে উদ্ধার করে পানিহাটি রাজ্য সাধারণ হাসপাতালে নিয়ে আসা হলে প্রাথমিক চিকিৎসার পর আহত পরেশ দাস কে চিকিৎসার জন্য অন্যত্র পাঠানো হয়েছে।

তবে পানিহাটি বিধানসভায় নির্বাচন পরবর্তী হিংসা বেড়েই চলেছে। ওখানের স্থানীয় তৃণমূল কংগ্রেস নেতা ও কর্মীদের দাবি বোমার আঘাতে জখম হওয়া পরেশ দাস তৃণমূল কংগ্রেসের কর্মী এবং সে ভোটের দিনও বুথে কাজ করেছিল। স্থানীয় তৃণমূল কর্মীদের অভিযোগ “পানিহাটি বিধানসভার বিজেপি প্রার্থী সন্ময় বন্দ্যোপাধ্যায়ের নেতৃত্বে সারা পানিহাটি এলাকায় হিংসা ছড়াচ্ছে। বিজেপি আশ্রিত দুষ্কৃতীরা ই এই বোমাবাজি গুলো করে চলেছে , আর এরাই পরেশ দাস কে লক্ষ্য করে বোমা ছুড়ে ছুড়ে মেরেছে। প্রশাসন কে ওই দুষ্কৃতীদের কথা জানানো হয়েছে কিন্তু কোনো লাভ হয় নি। তবে আমাদের সম্পূর্ণ আস্থা রয়েছে প্রশাসনের ওপর।”

অন্যদিকে, গতকাল রাতে পানিহাটির বিজেপি প্রার্থী সন্ময় বন্দ্যোপাধ্যায় এর উপর আক্রমণ, বাড়ি ভাঙচুর ও বিজেপির প্রার্থীর বাড়িতে বোমার ছোড়ার অভিযোগ তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীদের বিরুদ্ধে। এমনকি সোদপুর স্বদেশ মোড়ে বিটি রোডের ওপর পুলিশের সামনেই বোমাবাজির ঘটনা ঘটলেও এখনো পর্যন্ত কেউ গ্রেফতার হয়নি বলে বিজেপি দাবি করে।

দোষীদের অবিলম্বে গ্রেফতারের দাবিতে রাতেই সোদপুর পানিহাটি ট্রাফিক মোড় অবরোধ করে বিজেপি সমর্থকরা। দীর্ঘ আধঘন্টা অবরোধ চলায় ব্যস্ত ট্রাফিক মোড় রাস্তার দু’ধারে পরপর গাড়ি দাঁড়িয়ে পরে। পরে যানচলাচলের পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়। একটি বোমা না ফাটায়, খড়দহ থানার পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে বোমাটি উদ্ধার করেছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

19 + thirteen =