সনাতন গরাই, দুর্গাপুর :- আষাঢ় পেরিয়ে শ্রাবনের মাঝামাঝি নেই বৃষ্টি দুর্গাপুরে। শ্রাবণেও দাপট খরার নেই বৃষ্টি ফাঁকা মাঠ।বাবাকে শান্ত করার জন্য শ্রাবনের দ্বিতীয় সোমবারে ভক্তদের পাশাপাশি জল ঢালতে ব্যস্ত চাষীরাও।
কেউ আসে বাবা ভোলানাথের মত স্বামী পাওয়ার জন্য আবার কেউ আসে সংসারের মঙ্গলের জন্য।সেই বীরভূমের অজয় নদে স্নান করে বাঁকে করে জল নিয়ে দীর্ঘ ২০কিলোমিটার পথ অতিক্রম করে জল ঢালতে আসে ভক্তরা।শ্রাবনের চার সোমবারেই ব্যাপক ভীড় হয় আঢ়েস্বর শিবমন্দিরে। মন্দিরে ভক্তদের যাতে অসুধিবা না হয় সেইজন্য প্রচুর প্রশাসন মোতায়েন করা হয়েছে। জয়দেব থেকে বাঁক নিয়ে আসার পথে ভক্তদের যাতে করে কোনো সম্যসা না হয় সেইজন্য প্রত্যেক জায়গায় জলসরবতের ব্যবস্থা করে প্রত্যেক গ্রামের মানুষ। বাবা ভোলানাথের মাথায় জল ঢালার পাশাপাশি ব্যাস্ত নেশা ভাঙ করার জন্য।
শিবপুরের কিছু মানুষ রাস্তায় বাবার ভক্তদের সকাল থেকেই জল সরবত দিয়ে সেবা করে যাচ্ছেন। তারা জানান বাবা ভোলানাথের ভক্তদের সেবা করে খুবই ভালো লাগছে, আমরা প্রত্যেক বছরই এইভাবে সেবা করতে চাই।