অলোক আচার্য, নববারাকপুরঃ- ৭৫ তম স্বাধীনতা দিবসের প্রাক্কালে বীর স্বাধীনতা সংগ্রামীদের স্মরণে রক্তদান তাদের শ্রদ্ধা জানাতে নববারাকপুর ১৫ নং ওয়ার্ড তৃণমূল কংগ্রেসের উদ্যোগে শনিবার সকালে স্থানীয় বি এড কলেজের সামনে অস্থায়ী প্রাঙ্গণে উপস্থিত ছিলেন রাজ্যের পুর ও নগরোন্নয়ন দফতরের মন্ত্রী চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য।

মন্ত্রী বলেন, আত্মবলিদান দিবসের আগের দিন ভারতের বীর সেনানীদের স্মরণ করে নববারাকপুর তৃণমূল কংগ্রেসের উদ্যোগে রক্তদান শিবিরের আয়োজন। খুব ভালো দিক। অঙ্গীকার করছি স্বাধীনতা সংগ্রামীদের উদ্দেশ্যে কে সাফল্য মন্ডিত করতে পারব এবং যে লক্ষ্যে আত্মবলিদান দিয়েছেন সেদিক থেকে বিচ্যুতি না হই এটা দৃঢ় অঙ্গীকার করতে হবে তবেই এই রক্তদান শিবিরের সার্থকতা সফল হবে। দেশের জন্য বীর সেনানীরা আত্মবলিদান দিয়েছেন সেই লক্ষ্যে থেকে আমরা কখনোই বিচ্যুতি না হই সেদিকে নজর রাখতে হবে।

বাংলায় দ্বিতীয় স্বাধীনতা এনেছেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বিগত দশ বছর ধরে বাংলার মানুষের পাশে থেকে দেখিয়ে দিয়েছেন দ্বিতীয় স্বাধীনতা কি। বাংলায় দ্বিতীয় স্বাধীনতা এনেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জোর গলায় কথা গুলি বলেন রাজ্যের পুর ও নগরোন্নয়ন দফতরের মন্ত্রী চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য শনিবার সকালে স্থানীয় নববারাকপুর ১৫ নং ওয়ার্ডের তৃণমূল কংগ্রেসের উদ্যোগে রক্তদান শিবিরে।

মন্ত্রী আরও বলেন, মুখ্যমন্ত্রী মেয়েদের দিকে বিশেষ লক্ষ্য দেন। আজ কন্যাশ্রী দিবস। আগামী দিনে লক্ষ্মীর ভান্ডার রাষ্ট্রপুঞ্জের স্বীকৃতি পাবে। তখন লক্ষ্মীর ভান্ডার দিবস পালন করতে সামর্থ হব। বীর স্বাধীনতা সংগ্রামীদের পরম শ্রদ্ধা জানাই।

৭৫ তম স্বাধীনতা দিবসের প্রাক্কালে নববারাকপুর ১৫ নং ওয়ার্ড তৃণমূল কংগ্রেস ও তৃণমূল যুব কংগ্রেসের উদ্যোগে আয়োজিত বীর শহীদদের স্মরণে রক্তদান শিবিরে উপস্থিত ছিলেন সাংসদ সৌগত রায়, নববারাকপুর পুরসভার মুখ্য প্রশাসক তৃপ্তি মজুমদার, প্রাক্তন পুরপিতা সুখেন মজুমদার, পুরসভার প্রশাসক মন্ডলীর সদস্য প্রবীর সাহা, জয়গোপাল ভট্টাচার্য, সুমন দে, তৃণমূল ছাত্র পরিষদের সভাপতি মনোজ সরকার, তৃণমূল মহিলা নেত্রী নির্মিকা বাগচী, ইন্ডিয়ান আর্ট কলেজের অধ্যক্ষ দেবাশিস মিত্র, জেলা তৃণমূল নেতা ঋষিকেষ রায়, ক্রীড়া সাংবাদিক পূর্ণেন্দু চক্রবর্তী, শিখা দেব, সমাজসেবী গৌতম মজুমদার সহ বিভিন্ন ওয়ার্ডের কোঅর্ডিনেটরা ও ওয়ার্ডের ছাত্র যুব মহিলারা।

শুরুতে দুটি দেশাত্মবোধক সংগীত পরিবেশন করেন শিশু শিল্পী অনুষ্কা ঘোষ। সমগ্র অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন নববারাকপুর পুরসভার প্রশাসক মন্ডলীর সদস্য প্রবীর সাহা। শিবিরে ৩২ জন রক্তদান করেন। রক্তদাতাদের স্মারক দিয়ে সন্মানিত করা হয়। বীর স্বাধীনতা সংগ্রামী শহীদ ভগৎ সিং, ক্ষুদিরাম বসু, রবীন্দ্রনাথ, নজরুল, নেতাজির মতো সেনানীদের তোরন দিয়ে শ্রদ্ধা জানান হয়।