সংবাদদাতা, বনগাঁ :- বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে সহবাস, ১০ বছরের সাজা ঘোষনা। বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে সহবাসের দায়ে সাজা ঘোষণা করল বিচারক। দোষীর নাম রামপ্রসাদ মণ্ডল। উত্তর ২৪ পরগণার গাইঘাটা থানার ছেকাঠির বাসিন্দা। পেশায় দমকল কর্মি ছিলেন।

পুলিশ সূত্রে খবর, ২০১৩ সালে উত্তর ২৪ পরগনার গাইঘাটার ছেকাঠীর বাসিন্দা পেশায় দমকলকর্মী রামপ্রসাদ মণ্ডল সঙ্গে একটি বিয়েবাড়িতে পরিচয় হয় নৈহাটির বাসিন্দা দীপিকা দাসের পোদ্দারের সঙ্গে। পরবর্তিতে দু’জনে মধ্যে ভালোবাসার সম্পর্ক তৈরি হয়। অভিযোগ, তখন রামপ্রসাদ দীপিকাকে বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে একাধিক বার ধর্ষণ করে। পরবর্তিতে রামপ্রসাদ তাকে বিয়ে করতে অশিকার করে। এই মর্মে দীপিকার পরিবার ২০১৪ সালের ১৪ জানুয়ারি গাইঘাটা থানায় অভিযোগ দায়ের করে। ২৪.০৪.২০১৪ সালে রামপ্রসাদ বনগাঁ আদালতে আত্মসমর্পণ করে। তখন তাকে বিচারক জামিনে মুক্ত করে। পাঁচবছর মুক্ত থাকার পর গতকাল বনগাঁ আদালতের এডিজে দুই বিচারক বর্ষ বনসেল আগারবল তাকে দোষি সাবস্ত করে। আজ তাকে দশ বছর সাজা ঘোষণা করে ও পঞ্চাশ হাজার টাকা জরিমানা করে। না দিতে পরলে আরো এক বছরের জেল হবে। ।