Advertisement

সানওয়ার হোসেন, কুলপি :- বিয়ের দিনই সকালে খালে ভাসতে দেখা গেলো যুবকের মৃতদেহ। ঘটনাটি ঘটে দক্ষিণ ২৪ পরগনা জেলার কুলপি থানার ঈশ্বরী পুর গ্রাম পঞ্চায়েতের আট মনোহরপুর গ্রামে। স্থানীয় সূত্রে জানা যায় এদিন সকালে খাল থেকে এক যুবকের মৃতদেহ উদ্ধার করল পুলিশ। মৃত যুবকের নাম যাদব হালদার(৩০)। গত দুদিন ধরে মৃত যাদব নিখোঁজ ছিল বলে জানা যায়। চতুর্দিকে খোঁজাখুজি করার পর আজ সকালে বাড়ির লোকজন কুলপি থানায় মিসিং ডায়েরি করার উদ্দেশ্যে যায় ঠিক তখনই খবর আসে খালের মধ্যে এক মৃতদেহ ভাসছে। খবর পেয়ে কুলপি থানার পুলিশ সহ পরিবারের লোকজন গিয়ে যাদবের মৃতদেহ ভাসতে দেখে। পুলিশ দেহটিকে ময়না তদন্তের জন্য ডায়ামণ্ড মহকুমা হাসপাতালে নিয়ে যায়।

পারিবার সূত্রে জানা যায় মৃত যাদব এর সঙ্গে একই গ্রামের এক বিবাহিত মহিলার সম্পর্ক ছিল বহুদিন ধরে, তারই জেরে গত লক্ষ্মী পূজার সময় ওই মহিলার দেওর ও বাড়ির লোকজন যাদবকে প্রচণ্ড মারধর করে ছিল। গ্রাম্য সালিশের মাধ্যমে এলাকার মানুষ সেটা মিটিয়ে দেবার চেষ্টা করে। গ্রামে এত মার খাবার পরও সে কিন্তু সম্পর্ক থেকে সরে আসেনি বলে জানা যায়, সে সম্পর্ক রেখেছিল ওই বৌদির সঙ্গে। পরিবারের লোকজনের অভিযোগ ওই সম্পর্কের জেরে ছেলেকে খুন করা হয়েছে। গত লক্ষ্মী পূজার সময় যারা যাদবকে মারধর করেছিল তাদের নামে কুলপি থানায় মৃতের পরিবারের পক্ষ থেকে অভিযোগ করেছে। অভিযুক্তরা ঘরে তালা দিয়ে পলাতক। প্রশাসন সূত্রে জানা যায় অভিযোগ তারা পেয়েছেন ময়না তদন্তের পরই এর সঠিক মৃত্যুর কারণ উদ্ধার করা যাবে, তবে ইতিমধ্যে অভিযুক্তদের খোঁজখবর নেওয়া শুরু করেছে কুলপি থানার পুলিশ।
এদিন মন্দির বাজারে বিয়ের কথা ছিলো। এই মর্মান্তিক ঘটনায় দুই পরিবারই শোকাহত। এলাকায় রয়েছে চাঞ্চল্যকর পরিস্তিতি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

4 + twelve =