অলোক আচার্য, বিশরপাড়া :- ভারতের নবজাগরণের অন্যতম শ্রেষ্ঠ মনীষী পন্ডিত ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগরের ১২৮তম মহাপ্রয়াণ দিবস উপলক্ষে বিশরপাড়া ১নং প্লাটফর্মে বিদ্যাসাগরের স্মৃতিচারণ ও মাল্যদান অনুষ্ঠান হল। বিদ্যাসাগর চর্চা কেন্দ্র আয়োজিত স্মৃতিচারণ অনুষ্ঠানে বিদ্যাসাগরের প্রতিচ্ছবিতে মাল্যদান করে শ্রদ্বার্ঘ জানান প্রাবন্ধিক কালিদাস ভদ্র,ব্যারাকপুর ২ পঞ্চায়েত সমিতির কর্মাধ্যক্ষ প্রবীর রাজবংশী,লেখক হরিদাস বালা,সংসীত শিল্পী তানিয়া দাম,বাচিক শিল্পী জয়া বসু,ঈশিতা বন্দোপাধ্যায়,নাট্যব্যক্তিত্ব মিলন বসু,প্রাক্তন শিক্ষক গান্ধীচরন মাইতি,শৈলেন ঘোষ,দিবস বন্দোপাধ্যায়,রীনা বন্দোপাধায়,বিপ্লব দত্ত,প্রমুখ বিশিষ্ট জনেরা। ক্ষুদে পড়ুয়া থেকে বিভিন্ন বিদ্যালয়ের শিক্ষক, কবি, লেখক, সংগীত শিল্পী, নাট্যব্যাক্তিত্ব,বাচিক শিল্পী পথ চলতি সাধারন মানুষ বিদ্যাসাগরের প্রতিচ্ছবিতে পুষ্পার্ঘ্য নিবেদন করে শ্রদ্বার্ঘ জানান ও হাত জোড় করে নমস্কার করেন। শুরুতে স্বাগত ভাষনে বিদ্যাসাগর চর্চা কেন্দ্রের সম্পাদক রামেশ্বর বন্দোপাধ্যায় বলেন ভারতের নবজাগরণের অন্যতম পথিকৃৎ পন্ডিত ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগরের ১২৮তম মহাপ্রয়াণ দিবস উপলক্ষে বিশরপাড়া ১নং প্লাটফর্মে সকলে সমবেত হয়েছি স্মৃতিচারণ অনুষ্ঠানে। দীর্ঘ পাঁচ বছর ধরে চলছে এই বিদ্যাসাগরের মহাপ্রয়াণ দিবস। বাংলার অন্যতম শ্রেষ্ঠ মনীষী বিদ্যাসাগরের চিন্তাভাবনা তরুণ প্রজন্মের ছেলেমেয়েদের কাছে পৌঁছে দিতে বিদ্যাসাগর চর্চা কেন্দ্রের এই প্রচার ও প্রয়াস। বিদ্যাসাগরের দ্বিশত জন্মবার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষে বর্ষব্যাপী বিভিন্ন কর্মসূচির মধ্যে থাকবে সেমিনার, প্রদর্শনী,সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতা। কথায় কবিতায় ও বিদ্যাসাগরের প্রতিচ্ছবিতে মাল্যদান ও পুষ্পার্ঘ্য নিবেদন করে যথাযোগ্য মর্যাদা সহকারে বিদ্যাসাগরের ১২৮তম মহাপ্রয়াণ দিবস সাড়ম্বরে পালিত হয় বিশরপাড়া ১নং প্লাটফর্মে। এক ঘন্টার সংক্ষিপ্ত প্রভাতী স্মৃতিচারণ অনুষ্ঠানে মানুষের উপস্হিতি ছিল লক্ষ্যনীয়।