নিজস্ব সংবাদদাতা, বসিরহাট :- প্রেমকার বান্ধবীর এসএমএস ও ফোন নম্বর না দেওয়ায়, প্রেমিকাকে মোবাইল ফোনে ডেকে মারধর প্রেমিকের।

বসিরহাট মহকুমার হাসনাবাদ থানার পূর্ব খেজুরবাড়িয়া গ্রামের ঘটনা। হিঙ্গলগঞ্জ মহা বিদ্যালয়ের প্রথম বর্ষের ছাত্রী বয়স ১৮। বাড়ি হাসনাবাদ থানার রূপমারি গ্রামে । গত ৩ মাস আগে পাশের গ্রাম খেজুরি বেরিয়ার যুবক বছর ১৯ সুরজিৎ মন্ডল বাবা-মা কর্মসূত্রে তামিলনাড়ু থাকে। প্রথম বর্ষের ছাত্রী সঙ্গে হোয়াটসঅ্যাপ ফেসবুকের মোবাইল ফোনের মাধ্যমে প্রথমে বন্ধুত্ব তারপরে প্রেম আলাপচারিতা ভালোবাসা হয়। প্রেমিকার দাবি প্রেমিকের বাড়িতে যাতায়াত ছিল ওই ছাত্রীর ও তার পরিবারের। তারপর থেকে সম্পর্ক গভীর গভীরতর হয়ে ওঠে দুজনের মধ্যে ভালোবাসা দীর্ঘতর হয়। কিন্তু বাধ সাধল প্রেমিকার বান্ধবীর এস এম এস ও ফোন নম্বর। প্রেমিকার কাছে সেই বান্ধবীর মোবাইল নাম্বার এসএমএস রয়েছে ।এই দাবি করে আজ বৃহস্পতিবার সকাল দশটা নাগাদ প্রেমিকার কাছে ফোন করে সুরজিৎ মন্ডল প্রেমিকার বান্ধবীর এসএমএস ও মোবাইল নম্বর চাই বলে ফোন করে। কিন্তু প্রেমিকার কাছে না থাকায় দিতে পারিনি । কেন দেয়নি এই অজুহাতে মোবাইল ফোনে প্রেমিকাকে ডেকে আনে প্রেমিক । তার পূর্ব খেজুরবাড়িয়া বাড়ির সামনে তাকে ঘরে আটকে বেধড়ক মারধর করে প্রেমিক। প্রেমিকা টাকি গ্রামীণ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন । শরীরের বিভিন্ন অংশে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। এই ঘটনায় স্থানীয় গ্রামবাসীরা জানতে পেরে প্রেমিকার বাবাকে খবর দেয়। ঘটনাস্থলে তার মেয়েকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করেন । প্রেমিক সুরজিৎ মন্ডল কে হাসনাবাদ থানার পুলিশ আটক করেছে। ছাত্রীর অবস্থা আশঙ্কাজনক দাবি পরিবারের ।তদন্ত শুরু করেছে হাসনাবাদ থানার পুলিশ।