নিজস্ব সংবাদদাতা, বসিরহাটঃ- মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের নির্দেশে ক্ষতিগ্রস্তদের পাশে দাঁড়াতে এগিয়ে এসে রাজ্যের দুই মন্ত্রীও। বজ্রাঘাতে মৃতের পরিবারের পাশে আর্থিক সাহায্য দিতে বসিরহাট মহকুমায় রাজ্যের দুই মন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক, ব্রাত্য বসু।

ইতিমধ্যে গোটা বসিরহাট মহকুমা জুড়ে বজ্রাঘাতে ৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। বসিরহাট ২ নম্বর ব্লকে মাটিয়া থানার চৈতা গ্রাম পঞ্চায়েতের সাদিক নগর গ্রামে রিয়াজ উদ্দিন মন্ডল (৫০) গত রবিবার ৬,ই জুন বিকেল বেলায় বাড়ির বারান্দায় বসে মাছের জাল বুনছিলেন। সেই সময় হঠাৎ বজ্রাঘাতে ওই ব্যক্তির মৃত্যু হয়। এই ঘটনায় শোকের ছায়া নেমে আসে গোটা গ্রামে। দুঃস্থ পরিবারের একমাত্র রোজগারের সম্বল ছিল রিয়াজউদ্দিন তার মৃত্যুতে গোটা পরিবার অসহায় ও হতাশা গ্রস্থ হয়ে পরে।

সেই পরিবার গুলোর পাশে এসে দাঁড়াতে বুধবার সকাল ১১.৩০ নাগাদ রাজ্যের বনমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক ও শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসু এবং বসিরহাট উত্তর বিধান সভার চেয়ারম্যান এটিএম আব্দুল্লাহ রনি সঙ্গে স্থানীয় নেতারা, মৃতের পরিবারের বাড়ি যান, পরিবারের হাতে দু লক্ষ টাকার চেক ও নগদ অর্থ তুলে দেন। তার পাশাপাশি মৃত পরিবারের ছেলেমেয়েদের পড়ার সম্পূর্ণ খরচা রাজ্য সরকার দেব বলে আশ্বাস দেন দুই মন্ত্রী।

ক্ষতিপূরণের ব্যবস্থা করেন‌ তৃণমূল প্রকাশ করেন যেভাবে বজ্রাঘাতে মৃত্যু হচ্ছে তাদের দুশ্চিন্তায় রাখছে রাজ্য সরকারকে। ইতিমধ্যে কলকাতা পুরসভা তরফ থেকে বজ্রপাত নিয়ন্ত্রণ মেশিন বসানো হয়েছে। ধাপে ধাপে রাজ্যের বিভিন্ন জায়গায় বসানো হবে, এই যন্ত্র এছাড়াও মানুষকে সতর্ক ও সচেতন ও তার বার্তা দেন।

রাজ্যের মন্ত্রীরা জানান, বজ্রপাত শুরু হলে নিরাপদ স্থানে চলে যাবেন, গাছ তলায় থাকবেন না। জল থেকে দূরে থাকুন কোন পাকা বাড়ি নিচে থাকবেন।