চঞ্চল মিস্তিরী, বাংলাদেশ প্রতিনিধি :- বগুড়ায় মাত্র ১০০ টাকার জন্য আত্মহত্যা করেছেন শেফালী বেগম নামের এক গৃহবধূ। জানা যায়, উন্চুরখী গ্রামের মুক্তিযোদ্ধার মেয়ের সাথে ১৪ বৎসর আগে নারুলী খন্দকার পাড়া তোফাজ্জল হোসেনের ছেলের সাথে বিয়ে হয়।বর্তমানে রাহাত (১২) ও রাফি (৫) নামে তাদের দুটি ছেলে সন্তান আছে। রুবেল একাধিক বার যৌতুকের জন্য স্ত্রী কে মারধর করে। স্ত্রী নিরবে সহ্য করতো। এর ধারাবাহিকতায় গতকাল রাত সাড়ে আটটায় রুবেল তার স্ত্রী কে ২৫০ টাকার বাজারে ১০০ টাকা উধাও করে। ১০০ টাকা না পাওয়ায় রুবেল তার স্ত্রী কে এলোপাথাড়ি মারধর করে। একপর্যায়ে রাত আনুমানিক ৪টায় তার বড় ছেলে রাহাত বাথরুমে যেতে গিয়ে দেখেন শেফালী খোলা ঘরে ঝুলন্ত অবস্থায়। তখন রাহাত চিল্লাতে থাকলে রুবেল লাশ নামান। তবে শেফালীর আত্বীয়দের দাবী এটা একটা হত্যাকান্ড। আমরা এই নির্মম হত্যার কঠোর বিচার দাবী করছি। এ ব্যপারে বগুড়া সদর থানার এস আই সোহেল কে জিঙ্গাসা করলে তিনি বলেন, রুবেল এখন পলাতক, প্রাথমিক ভাবে জানা যাচ্ছে এটা আত্মহত্যা, তবে লাশ ময়নাতদন্তের জন্য শজিমেক হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। ময়না তদন্তের রিপোর্ট আসলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।