অলোক আচার্য, নববারাকপুরঃ- সংক্রমণ নিম্নমুখী।তৃতীয় ঢেউয়ে বাড়বাড়ন্ত রুখতে জনস্বাস্থ্য সচেতনতায় সরকারের পাশাপাশি বিভিন্ন স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন গুলি এগিয়ে এসে সামাজিক দায়বদ্ধতা পালনে কোভিড সচেতনতা সতর্কীকরণ এবং মাস্ক, হ্যান্ড স্যানিটাইজ এবং সাবান বিলি করে সামাজিক স্বাস্থ্য সুরক্ষায় বার্তা দিল নববারাকপুরে বহুমুখী সামাজিক সংগঠন পশ্চিম মাসুন্দা শতদল অ্যাথলেটিক ক্লাব। ২৬ জানুয়ারি ৭৩তম প্রজাতন্ত্র দিবসে নববারাকপুর শতদল অ্যাথলেটিক ক্লাবের ৫৪ তম প্রতিষ্ঠা দিবস উপলক্ষে বর্তমান করোনা পরিস্তিতির প্রতিকার ও সুরক্ষার জন্য পথচলতি সাধারণ মানুষ ও স্থানীয় গণপরিবহন কর্মীদের মধ্যে মাস্ক, হ্যান্ড স্যানিটাইজ বোতল এবং সাবান বিলি করল। পাশাপাশি অসুস্থ মানুষের প্রয়োজনে বিনামূল্যে অক্সিজেন (১০ লিটার) সিলিন্ডার পরিষেবার ও উদ্বোধন করা হয় এদিন।

সংগঠনের জন্মদিন উপলক্ষে করোনার ত্রাণ তহবিলে নববারাকপুর পুরসভার মুখ্য প্রশাসক প্রবীর সাহার হাতে পাঁচ হাজার টাকার চেক তুলে দেওয়া হয় এদিন সংস্থার পক্ষ থেকে। করোনা রিলিফ ফান্ডে। এলাকায় করোনা আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসা ও উন্নয়নের অর্থ ব্যয় করা হবে বলে জানালেন প্রশাসক।

প্রশাসক বলেন, শহরে অর্থের অভাবে কাউকে মরতে দেব না এটা আমাদের স্বপ্ন। বহু করোনা রোগী আমাদের ছেড়ে চলে গিয়েছেন। সেটা হতে দেবে না পুরসভা। দায়বদ্ধ সরকার। সামাজিক দায়বদ্ধতা পালনে বিভিন্ন সামাজিক ও স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন গুলি এগিয়ে এসে পুরসভার পাশে দাঁড়িয়ে সাধ্যমতো পরিষেবা ও সহায়তা করছে। এটা খুব একটা ভালো কাজ। বিগত দিনে অতিমারি নিকটজনদের হারিয়েছি। কাছে কোন মানুষজন না থাকলেও পুরসভা রয়েছে। ইতিমধ্যেই পুরসভা এলাকায় একশ শতাংশ টিকাকরণ সফল করতে সক্ষম হয়েছে। ১৫-১৮ বছর বয়সী পড়ুয়াদের স্বাস্থ্য সুরক্ষায় টিকাকরণের পাশাপাশি স্কুল ছুট বাচ্চাদের ও টিকাকরণ পরিকল্পনা নিয়েছে। রয়েছে সেফহোমের সুব্যবস্হা ও। পুরসভার ৭ও ৮নং ওয়ার্ডের এলাকার সামাজিক সংগঠন তাদের প্রতিষ্ঠা দিবসে সামাজিক কর্মসূচি হিসেবে মাস্ক, স্যানিটাইজ ও সাবান বিলি করছে কোভিড জনস্বাস্থ্য সচেতনতায়। খুব ভালো উদ্যোগ ।সকল সদস্যদের আন্তরিক ধন্যবাদ। পাশাপাশি অক্সিজেন সিলিন্ডার পরিষেবা চালু করা হল।

উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় কোঅর্ডিনেটর মনোজ কুমার সরকার, সংগঠনের সভাপতি প্রদীপ গাইন, উপদেষ্টা মন্ডলীর সদস্য রামকৃষ্ণ মালাকার, সম্পাদক আনন্দ কর্মকার, বর্ষীয়ান নির্মল রঞ্জন দে, সংগঠনের অন্যতম সদস্য বিশ্বনাথ দত্ত, কিশোর দত্ত, কল্যাণ দত্ত, সহ সংঘের মহিলা সদস্যগণ।

সংঘের সভাপতি প্রদীপ গাইন জানান, সংঘের ৫৪তম জন্মদিন এই ২৬ জানুয়ারি ৭৩ তম প্রজাতন্ত্র দিবসে। প্রতি বছরই বিভিন্ন সাংস্কৃতিক কর্মসূচি প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠান ও প্রীতিভোজ হয় এবছর করোনা অতিমারি আবহে জাকজমক থেকে সরে এসে সামাজিক স্বাস্থ্য সুরক্ষায় সচেতনতায় মাস্ক, স্যানিটাইজ ও সাবান বিলি করা হল। পাশাপাশি এলাকায় অসুস্থ মানুষদের জরুরি ভিত্তিতে প্রয়োজনে বিনামূল্যে অক্সিজেন সিলিন্ডার পরিষেবা চালু করা হল। বিশেষ ভাবে কৃতজ্ঞতা জানাব নববারাকপুর পুরসভাকে। বিগত করোনা অতিমারির সময় পুরসভার সাধারণ মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে যে ভাবে স্বাস্থ্য পরিষেবা দিয়েছেন পুরবাসীদের।নজিরবিহীন। পুর প্রশাসক, কোভিড টিমের নোডাল অফিসার থেকে স্বাস্থ্য কর্মীরা চিকিৎসকরা খুব ভালো কাজ করেছেন ২৪ ঘন্টা।

এদিন আটশ মাস্ক, পাঁচশ সাবান এবং পাঁচশ হ্যান্ড স্যানিটাইজ বোতল বিলি করা হয়। জন্মদিন উপলক্ষে পাঁচশ কেক ও বিলি করা হয় এদিন। নববারাকপুর পুরসভার করোনা ত্রাণ তহবিলে পাঁচ হাজার টাকার চেক তুলে দেওয়া হয় পুর প্রশাসক প্রবীর সাহার হাতে।সকালে ৭৩ তম প্রজাতন্ত্র দিবসে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করার পর এলাকায় সাধারণ মানুষ ও গণপরিবহন কর্মীদের মধ্যে মাস্ক স্যানিটাইজ ও সাবান বিলি করে জনস্বাস্থ্য সচেতনতার বার্তা তুলে ধরা হয় ।সাধারণ মানুষের অভূতপূর্ব সাড়া ফেলে দেয় এদিন। সংঘের মহিলা সদস্যদের স্বতঃস্ফূর্ত অংশগ্রহণ ছিল চোখে পড়ার মতো।