অলোক আচার্য, বিরাটীঃ- দিল্লিতে ক্ষমতাসীন বিজেপি পরিচালিত কেন্দ্রীয় সরকারের লাগাতার পেট্রোল-ডিজেল ও রান্নার গ্যাসের অস্বাভাবিক মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে ও তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নির্দেশে শনিবার সকাল দশটা নাগাদ সারা রাজ্যের পাশাপাশি উত্তর দমদম শহর তৃণমূল কংগ্রেসের পক্ষ থেকে শহরের পাঠানপুর মোড় এলাকায় এক অবস্থান বিক্ষোভ কর্মসূচিতে সামিল হলেন তৃণমূল কর্মী-সমর্থকরা।

এইদিনের অবস্থান-বিক্ষোভে উপস্থিত ছিলেন রাজ্যের মন্ত্রী চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য, সাংসদ সৌগত রায়, উত্তর দমদম পুরসভার মুখ্য প্রশাসক সুবোধ চক্রবর্তী, প্রশাসক মন্ডলীর সদস্য লোপামুদ্রা দত্ত চৌধুরী, জয়দেব কর্মকার, রাজর্ষি বসু, সৌমেন দত্ত, মহুয়া শীল, বাসন্তী দে বিশ্বাস সহ বিভিন্ন ওয়ার্ডের কো-অর্ডিনেটর গণ ও উত্তর দমদম শহর তৃণমূল কংগ্রেসের অন্যান্য নেতৃত্ববৃন্দ। এছাড়া উপস্থিত ছিলেন উত্তর দমদম শহর তৃণমূল কংগ্রেসের বিভিন্ন ওয়ার্ডের ছাত্র যুব মহিলারাকর্মী সমর্থকেরা।

প্রসঙ্গত, দিল্লির মসনদে ক্ষমতাসীন কেন্দ্রীয় সরকারের জনবিরোধী নীতি প্রণয়নের ফলস্বরূপ বর্তমানে অস্বাভাবিক বৃদ্ধি পেয়েছে পেট্রোল, ডিজেলের মূল্য। যার প্রভাবে স্বাভাবিকভাবেই মূল্যবৃদ্ধি ঘটেছে খোলাবাজারে কাঁচা সব্জি, আনাজ থেকে শুরু করে নিত্য প্রয়োজনীয় খাদ্যসামগ্রীর। এছাড়াও রান্নার গ্যাসের আকাশছোঁয়া মূল্যবৃদ্ধির ফলে সরাসরি তার বিরূপ প্রভাব পড়তে শুরু করেছে নিম্নমধ্যবিত্ত ও মধ্যবিত্তের হেঁসেলে। ফলে দৈনন্দিন জীবন অতিবাহিত করতে গিয়ে হিমশিম খাচ্ছেন সাধারণ খেটে খাওয়া মানুষজন।

কেন্দ্রীয় সরকারের এই অমানবিক সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানাতেই মূলত এইদিনের অবস্থান-বিক্ষোভ বলে বিক্ষোভ মঞ্চ থেকে জানিয়েছেন উত্তর দমদম শহর তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি তথা পুর প্রশাসক মন্ডলীর অন্যতম সদস্য বিধান বিশ্বাস। বিজেপি সরকার ক্ষমতায় আসার পর অন্যান্য দেশের তুলনায় পেট্রোল ডিজেল ও রান্নার গ্যাসের মূল্য সর্বাধিক বৃদ্ধি পেয়েছে ভারতবর্ষে বলেও এই দিন দাবি করেন তিনি। এছাড়াও দশ বছর ক্ষমতায় থেকেও সাধারণ মানুষের সার্বিক উন্নতির কথা না ভেবে একাধিক জনবিরোধী নীতি প্রণয়নের মধ্য দিয়ে দেশবাসীকে যন্ত্রণা দিয়ে চলেছে এই সরকার বলেও দাবি করেন