নিজস্ব প্রতিনিধি, পুরুলিয়াঃ- নববর্ষের দিনে পুরুলিয়ার মানবাজার-২ ব্লকের কুমারী সৃজন ডুংরিতে মানবাজার-২ পঞ্চায়েত সমিতির ঌজন সহায়তায় কুমারী গ্রাম পঞ্চায়েতের উদ্যোগে মাটির সৃষ্টি প্রকল্পের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন হল।

পুরুলিয়ার মাটির সৃষ্টি – প্রকৃত অর্থেই এক নতুন “ধূলামন্দির”, যাতে মানুষ আছে, প্রকৃতি আছে, কর্ম আছে, সংস্কৃতি আছে, সমষ্টি আছে আর সর্বোপরি চিরায়ত উন্নয়নের এক চিরস্থায়ী বার্তা আছে। ১৪২৯ বঙ্গাব্দের ১লা বৈশাখের নতুন ভোর নিয়ে আসছে মাটির সৃষ্টির এক নতুন দিগন্ত। লোকসংস্কৃতি, পর্যটন আর কর্মসংস্কৃতি – এই ত্রিধারার ত্রিবেণী সঙ্গম হ’ল মাটির সৃষ্টিতে ১লা বৈশাখের সকাল থেকেই।

ভূমি পুজো দিয়ে শুরু স্থানীয় উপভোক্তাদের সঙ্গে মাটির সৃষ্টি প্রকল্প সংক্রান্ত আলোচনা, স্থানীয় স্বনির্ভর গোষ্ঠীর অংশগ্রহণ, দুপুরে সবাই মিলে পঙক্তি ভোজন, বিকালে ধামসা মাদলের দ্রিমি দ্রিমি ছন্দে পা মেলানো। ছিল পুরুলিয়ার বৈচিত্র্যময় বিভিন্ন লোক আঙ্গিকের সাংস্কৃতিক পরিবেশনা। উন্মুক্ত হবে সৃষ্টির নতুন দিগন্ত – আকৃষ্ট হবেন পর্যটক।

উপভোক্তা আর প্রকল্পের গন্ডি ছাড়িয়ে, উদ্যোগপতি আর উদ্যোগের সীমাবদ্ধতা এড়িয়ে – মানুষ আর প্রকৃতির নাড়ীর টান চোখে পড়বে মাটির সৃষ্টি প্রকল্প রূপায়িত “ধূলামন্দির”।