*পাথরের বাবা ভোলানাথ কে সকলেই পুজো করতে ব্যস্ত, কিন্তু বাস্তবের ভোলানাথ অভুক্ত*

0
Advertisement

সনাতন গরাই, দুর্গাপুর :- দেবাদিদেব মহাদেব হলেন হিন্দুধর্মের সর্বোচ্চ দেবতা। সেই দেবাদীদেবের পূজা প্রত্যেক সোমবার হয় ।শ্রাবনের প্রত্যেক সোমবারে ভক্তরা তাদের মনোসকামনা পূরণের জন্য গঙ্গার জল বাবার মাথায় ঢালে।বাবা মহাদেবকে বিভিন্ন নামি দামি ফলমূল দিয়ে পূজা করেন।কিন্তু বাস্তবের শিব অভুক্ত অবস্থায়।রাস্তার ধারে ভিক্ষা করে সংসার চালায় শেখ রহিম নামে এক বাচ্চা ছেলে।যার বয়স ৪-৫ এর মধ্যে।শিবের ভক্তদের হাতে পায়ে ধরে কিছু টাকা চাইছে,কেউ দিচ্ছে আবার কেউ ফিরিয়ে দিচ্ছে।পরনে শুধু ছেড়া প্যান্ট নেই জামা গেঞ্জি।তাকে জিজ্ঞাসা করলে বলে আমাকে কিছু দাও আমারা কিছু খাবো।বর্তমানে দুর্গাপুরের একাধিক স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন এই অনাথ বাচ্চাদের সেবা করে চলে,এবং শিক্ষা দিয়ে চলে। রহিম কে জিজ্ঞাসা করলে সে বলে আমার বোন আছে মা আছে সবাই ই ভিক্ষা করে আমরা মলানদীঘিতে থাকি।একদম শিক্ষার অভাবে এরা মাঝে মাঝে মগ্ন হয়ে যায় বিড়ি সিগারেট আর ডেনড্রাইটের নেশায়,মাঝে মাঝে ব্যাস্ত পকেটমারও করতে ভালো পথ দেখানোর কেউ নেই।ক্রাইম করে কিছু মানুষ এই সব বাচ্চাদের খাটিয়ে টাকা ছিনিয়ে নেয় এসবের মধ্যে পড়ে না তো।এদের ভয়ে কি আমাদের কাছে মুখ খুলছে না বাচ্চাগুলো।কোনো কিছুকে তোয়াক্কা না করে এই সব বাচ্চাদের নিয়ে ব্যবসা করে মুনাফা লুটে চলে সর্বদা একশ্রেণীর মানুষ এইসবের শিকার নয় তো এই বাচ্চাগুলো।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

nineteen + fourteen =