অলোক আচার্য, খড়দহঃ- পশ্চিম বাংলায় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিকল্প কিছু নেই। ক্ষমতায় এসে দেখিয়ে ছেন। সাধারণ মানুষ পাশে আছে। আগামী দিনে প্রমানিত হবে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিকল্প ভারতবর্ষে ও নেই। মানুষের পাশে থেকে কাজ করে চলেছেন। চার চারটে প্রতিশ্রুতি পূরন করেছেন। বহিরাগতদের কোন স্থান নেই বাংলায়। নরেন্দ্র মোদী ক্ষমতায় আসার জন্য অনেক মানুষকে দিয়ে মমতার নামে কুৎসা অপপ্রচার করেছিলেন। কোন কাজ হয়নি। নরেন্দ্র মোদী মানুষের প্রত্যাশা পূরণ করতে পারেনি। মমতার পিছনে লাগার জন্য নিম্নবর্গীয় রাজ্যপাল জগদীপ ধনকারকে লাগিয়েছেন। সারাদিন মমতার পিছনে সরকারের বিরুদ্ধে আক্রমণ করছেন।

রবিবার সকালে ব্যারাকপুর ২ ব্লকের খড়দহ ব্লক তৃণমূল যুব কংগ্রেসের উদ্যোগে আয়োজিত মুড়াগাছা কাজল সিনহার স্মৃতিতে রক্তদান শিবির উদ্বোধন করে কথা গুলি বলেন রাজ্যের কৃষি মন্ত্রী শোভন দেব চট্টোপাধ্যায়। খড়দহ প্রয়াত বিধায়ক জননেতা কাজল সিনহা স্মৃতিতে মন্ত্রী শোভন দেব চট্টোপাধ্যায় বলেন, আগামী দিনে কাজল সিনহা র স্মৃতিকে স্মরণীয় করে রাখতে মানুষের মনে বেঁচে থাকার জন্য ফুটবল প্রতিযোগিতা ও গ্রন্থাগার মুখি কিছু কর্মসূচির প্রস্তাব রাখেন। এদিন রক্তদাতাদের একটি করে মেহগনি চারাগাছ তুলে দেওয়া হয়।

উপস্থিত ছিলেন রাজ্যের খাদ্য মন্ত্রী রথীন ঘোষ, কাজল সিনহার সহধর্মিনী নন্দিতা সিনহা, খড়দহ পুরসভার প্রশাসক নীলু সরকার, রাজ্যে তৃণমূল যুব কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক সায়ন দেব চট্টোপাধ্যায়, অশোকনগর বিধানসভা বিধায়ক নারায়ণ গোস্বামী, পাতুলিয়া গ্রাম পঞ্চায়েতের উপ প্রধান কিশোর বৈশ্য, পঞ্চায়েত সদস্য সুকুমার সিং, জেলা পরিষদের এসসিএসটি সভানেত্রী আলোরানী সরকার, জেলা সংখ্যালঘু সেলের সভাপতি মহম্মদ খালেক, জেলা তৃণমূল ছাত্র পরিষদের সভাপতি বাণীব্রত চক্রবর্তী, খড়দহ ব্লক তৃণমূল যুব কংগ্রেসের সভাপতি তথা ব্যারাকপুর ২ পঞ্চায়েত সমিতির খাদ্য কর্মাধ্যক্ষ প্রবীর রাজবংশী।

প্রবীর রাজবংশী বলেন, শুধু রক্তদান শিবির নয় সারা বছর এলাকায় মানুষের পাশে থেকে বিভিন্ন সামাজিক ও সাংস্কৃতিক কর্মসূচি পালন করে থাকে খড়্দহ ব্লক তৃণমূল যুব কংগ্রেসের কর্মীবৃন্দ। দলের প্রতিষ্ঠা দিবস, রাখি বন্ধন, দুঃস্থদের শীত বস্ত্র ও পড়ুয়াদের বই বিতরণ। এবছর ১৩ তম রক্তদান শিবির। কলকাতার এসএসকেএম হাসপাতাল ব্লাড ব্যাঙ্কের সহযোগিতায় শিবিরে ৫৯ জন রক্তদান করেন এদিন।