অলোক আচার্য, নববারাকপুরঃ- পরিবেশ কে সুস্থ রাখতে হবে। পরিবেশ সুস্থ না থাকলে কেউ সুস্থ থাকব না। সচেতনতা আরো বেশি করে আমাদের জাগ্রত করতে হবে। সচেতনতা হতে আগ্রহ বৃদ্ধি হচ্ছে। প্রযুক্তির যুগে নতুন নতুন প্রযুক্তি পৃথিবীকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছে। পরিবেশ সম্পর্কিত সচেতনতা বাড়ছে। পরিবেশ কে আরো সুরক্ষিত রাখতে নতুন নতুন পদক্ষেপ গ্রহণ করে সচেতনতা বাড়াতে হবে। সচেতনতা সম্পর্কে পদক্ষেপ গ্রহণ করতে হবে। নববারাকপুর পুরসভা খুব ভালো কাজ করছে এলাকায়। প্লাস্টিক ক্যারিব্যাগ বর্জন নিয়ে মানুষকে সচেতন করছে।

রবিবার বিশ্ব পরিবেশ দিবস উপলক্ষে নববারাকপুর শহর তৃণমূল ছাত্র পরিষদের পরিবেশ বান্ধবদের সম্মান প্রদান তৎসহ রক্তদান শিবিরে উপস্থিত থেকে স্থানীয় কৃষ্টি প্রাঙ্গণে কথা গুলি বলেন রাজ্যের অর্থমন্ত্রী চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য। পরিবেশ পরিচ্ছন্নতায় নববারাকপুর পুরসভার নির্মল সাথী বন্ধুরা খুব ভালো কাজ করেছেন করোনা কালে। উত্তর ২৪ পরগণা জেলার নববারাকপুর পুরসভার অবদান অনস্বীকার্য। করোনাকালে এলাকায় পরিচ্ছন্নতা বজায় রাখতে প্রথম সারিতে থেকে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে কাজ করেছেন নির্মল সাথীরা। জোর গলায় বলেন মন্ত্রী চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য।

পরিবেশ দূষণের মাত্রাও বাড়তে থাকছে। কিভাবে নিয়ন্ত্রিত করব ভাবতে হবে। ব্যাটারি চালিত গাড়ি কতটা সাধারণ মানুষের আয়ত্তে দেখার ব্যাপার আছে বলেন মন্ত্রী। রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী পরিবেশ সচেতনতা সম্পর্কে অত্যন্ত দৃঢ় পদক্ষেপ গ্রহণ করেছেন। পরিবেশ দপ্তর অত্যন্ত ভালো ভাবে কাজ করছে। পুরসভা গুলিতে পরিবেশ দিবস পালিত হচ্ছে। পরিবেশ সম্পর্কিত কেন্দ্রীয় সরকার কি কি কাজ করেছেন বাজেটে কতটা বৃদ্ধি পেয়েছে দেখার বিষয়। নববারাকপুর পুরসভার নির্মল সাথী পরিবেশ বান্ধব দের হাতে গাছের চারা তুলে দিয়ে সন্মানিত করেন অর্থমন্ত্রী চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য ।

উপস্থিত ছিলেন পুরসভার পুরপ্রধান প্রবীর সাহা, উপ পুরপ্রধান স্বপ্না বিশ্বাস, শহর তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি সুখেন মজুমদার, সমাজসেবী তপন দাস, অন্যতম উদ্যোক্তা শহর তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি তথা কাউন্সিলর মনোজ সরকার, সৌমিক বোস, সুমন দে সহ তৃণমূল ছাত্র পরিষদের কর্মীবৃন্দরা। বিভিন্ন ওয়ার্ডের কাউন্সিলর গন।