বর্নিতা রানী, বাংলাদেশ প্রতিনিধি :- ফেসবুক ও মোবাইল ফোনে অতিরিক্ত ভাড়া আদায়ের অভিযোগে এবং নোয়াখালী টু ঢাকা রোডে সরকার কর্তৃক নির্ধারিত ৩০৩ টাকা ভাড়া কার্যকরীকরণে জেলা প্রশাসক জনাব তন্ময় দাসের আদেশে নোয়াখালী জেলা শহরের দত্ত্বেরহাট থেকে মাইজদী বাজার পর্যন্ত হিমাচল পরিবহন,একুশে এক্সপ্রেস ও রংপুরগামী সৌখিন পরিবহনের ৫টি কাউন্টার ও একটি ঢাকাগামী একুশে এক্সপ্রেসকে নির্ধারিত ভাড়ার অতিরিক্ত ভাড়া আদায়ের অপরাধে ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে ৪১হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করেন মো: রোকনুজ্জামান খান এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট,নোয়াখালী জেলা প্রশাসকের কার্যালয়। আদালত পরিচালনায় সহযোগিতা করেন দেবানন্দ সিনহা,সহকারী পরিচালক, জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর,নোয়াখালী এবং আইন শৃঙ্খলা রক্ষায় সহযোগিতা করেন সুধারাম মডেল থানা পুলিশ, নোয়াখালী।

৭আগস্ট বিকাল ৩.৩০টা থেকে রাত ৭টা পর্যন্ত পরিচালিত অভিযানে দত্তেরহাট বাজার থেকে মাইজদী বাজার পর্যন্ত নোয়াখালী টু ঢাকা বাস কাউন্টার ও নোয়াখালী টু রংপুরগামী সৌখিন পরিবহন কাউন্টার এবং নোয়াখালী থেকে ঢাকাগামী একুশে এক্সপ্রেসে অভিযান পরিচালনা করা হয়। অভিযানে দেখা যায়,সকল বাস কাউন্টারগুলোতে সরকার নির্ধারিত ৩০৩ টাকার মূল্য তালিকা দৃশ্যমান পাওয়া যায়। তবে যাত্রীদের কাছ থেকে অতিরিক্ত ভাড়া আদায় করা হয়েছে যার প্রমাণ পাওয়া যায় টিকেট কাউন্টারে সংরক্ষিত টিকেটের কাউন্টার কপি থেকে এবং কাউন্টার ম্যানেজারদের ও যাত্রীদের জিজ্ঞাসাবাদে।

এসব অপরাধে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন ২০০৯ ও মোটরযান অধ্যাদেশ ১৯৮৩ অনুযায়ী হিমাচল পরিবহনকে ১৩ হাজার টাকা, একুশে এক্সপ্রেসকে ১৩হাজার টাকা ও নোয়াখালী থেকে রংপুরপুরগামী সৌখিন এক্সপ্রেসকে ১৫হাজার টাকাসহ সর্বমোট ৪১হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।