অলোক আচার্য, নিউ বারাকপুরঃ- শনিবার সকালে নিউ বারাকপুর পুরসভার উদ্যোগে পুরসভা প্রাঙ্গণে হল রক্তদান শিবির। শিবিরের উদ্বোধন করেন রাজ্যের স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য। বারাসত জেলা সদর হাসপাতালে ব্লাড ব্যাঙ্কের সহযোগিতায় শিবিরে ৫০জন পুর কর্মচারী রক্তদান করেন এদিন।

উপস্থিত ছিলেন সাংসদ সৌগত রায়, পুরসভার মুখ্য প্রশাসক তৃপ্তি মজুমদার, প্রাক্তন পুরপিতা সুখেন মজুমদার, পুরসভার প্রশাসক মন্ডলীর সদস্য প্রবীর সাহা, মিহির দে, নিউ বারাকপুর থানার ওসি বিজয় কুমার ঘোষ, ব্যারাকপুর পুলিশ কমিশনারেটের ঘোলা এসিপি২ সান্তাব্রত সেন, থানার এস আই প্রকাশ হাজারা, পুরসভার NULM সিটি ম্যানেজার তপন কুমার জানা সহ পুরসভার বিভিন্ন ওয়ার্ডের কোঅর্ডিনেটরা ও পুর কর্মচারীগণ।

মন্ত্রী চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য বলেন, রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ঐকান্তিক অনুপ্রেরণায গ্রীষ্মকালীন রক্ত সংকটে মোচনে পুরসভা গুলি কে জরুরি ভিত্তিতে একটি করে রক্তদান শিবির করার নির্দেশ দিয়েছেন তারই অঙ্গ হিসেবে নব বারাকপুর পুরসভার এই মহতি মানবিক প্রয়াস। খুব ভালো লাগছে পুরকর্মীরা এগিয়ে এসে রক্তদান করছেন। সকলকেই ঐক্যবদ্ধ ভাবে মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে সেবা করছেন। এটা একটা ইতিবাচক দিক। এই কোভিড পরিস্থিতিতে স্বাস্থ্যবিধি মেনে পুরসভার থেকে বিভিন্ন ক্লাব সংগঠন গুলি এগিয়ে এসে যে ভাবে মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে পরিষেবা দিচ্ছেন একটা দৃষ্টান্ত।

গত লকডাউনে ও এলাকার মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে পরিষেবা দিয়েছি। এবছর বিধানসভা নির্বাচনে আমাকে জন প্রতিনিধি নির্বাচিত করেছেন। পুরসভার বিভিন্ন ওয়ার্ডে ধারাবাহিক ভাবে তৃণমূল যুব কংগ্রেসের কর্মীবৃন্দ রক্তদান করছেন। আমি আপনাদের জন্য কাজ করে যাব। জেলার পুরসভা কে একটা মডেল পুরসভার রূপান্তরিত করা হবে বলেন মন্ত্রী। সবাই ভাল থাকবেন সুস্থ থাকবেন। মন্ত্রী রক্তদাতাদের গোলাপ দিয়ে উৎসাহিত ও সম্মানিত করেন। সাংসদ সৌগত রায় ও পুরসভার এই মানবিক উদ্যোগের প্রশংসা করেন। এর চেয়ে আর কাজ কিছু হতে পারে না বলেন সাংসদ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

three × 5 =