অলোক আচার্য, নিউ বারাকপুরঃ- করোনা অতিমারি আবহে জরুরি ভিত্তিতে আপৎকালীন অক্সিজেন পরিষেবা পৌঁছে দিতে এগিয়ে আসছে বিভিন্ন ক্লাব সংগঠন। কোভিড ১৯ পরিস্থিতিতে এলাকায় ঘরে ঘরে আপৎকালীন অক্সিজেন পরিষেবা দিতে নিউ বারাকপুর পুরসভার ১৭ নং ওয়ার্ডের কোঅর্ডিনেটর নিখিল মালো, পূর্ব কোদালিয়া স্পোর্টিং ক্লাব ও আনন্দপল্লী কাঠালতলা ক্লাবের যৌথ উদ্যোগে মঙ্গলবার বিকেলে স্থানীয় যুব ক্রীড়াঙ্গণ উদ্বোধন হল দুয়ারে অক্সিজেন পরিষেবা কেন্দ্রে।

মঙ্গলবার বিকেলে নিউ বারাকপুর পুরসভার ১৭নং ওয়ার্ডের যুব ক্রীড়াঙ্গনে চারটি অক্সিজেন সিলিন্ডার যুক্ত দুয়ারে অক্সিজেন পরিষেবা উদ্বোধন করেন রাজ্যের স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য। উপস্থিত ছিলেন নিউ বারাকপুর পুরসভার মুখ্য প্রশাসক তৃপ্তি মজুমদার, প্রাক্তন পুরপিতা সুখেন মজুমদার, পুরসভার প্রশাসক মন্ডলীর সদস্য মিহির দে, সমাজসেবী সুমন দে, স্হানীয় চিকিৎসক ডাঃ পংকজ কুমার অধিকারী, জেলা স্বাস্থ্য দফতরের আধিকারিক সঞ্জয় বোস, কোঅর্ডিনেটর মনোজ কুমার সরকার ও সংঘের সদস্যরা।

মানুষের পাশে । মানুষের সাথে থেকে এই করোনা অতিমারি মোকাবিলায় ক্লাব সংগঠন গুলি যে ভাবে এগিয়ে এসে পরিষেবা দিচ্ছে নব বারাকপুর বাসীকে। এটা একটা ইতিবাচক পদক্ষেপ।বলেন মন্ত্রী চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য। কোভিড পরিস্থিতিতে এলাকার মানুষদের জরুরি ভিত্তিতে অক্সিজেন সাপোর্ট দিতে ইতিমধ্যেই এলাকায় বহু ক্লাব সংগঠন এগিয়ে এসে অক্সিজেন পার্লার চালু করেছে। ক্লাব সংগঠন গুলি মানুষের পাশে মানুষের সাথে রয়েছে। পরিষেবা দিচ্ছে দিন রাত এই সঙ্কটকালে। নিউ বারাকপুর পুরসভা শহরে ইতিমধ্যেই ৬০ বেডের সেফ হোম চালু রয়েছে ।

নিউ বারাকপুর ইতিমধ্যেই ২৫ হাজার মানুষকে বিনামূল্যে টিকাকরণ দেওয়া হয়েছে। নিউ বারাকপুর পুরসভার আগামী দিনে জেলার মডেল পুরসভার গড়ে তোলা হবে। পুরসভার ১৭নং ওয়ার্ডের আগমনী মহিলা সদস্যরা পুরসভার সেফ হোমের সাহায্যর্থে পাঁচ হাজার টাকা অনুদান তুলে দেন মন্ত্রী চন্দ্রিমা ভট্টাচার্যের হাতে।

অবসরপ্রাপ্ত বর্ষীযান পেনশন হোল্ডার রনজিৎ রায় নিউ বারাকপুর পুরসভার সেফ হোমের উন্নয়নের দুই হাজার টাকার চেক তুলে দেন পুরসভার মুখ্য প্রশাসক তৃপ্তি মজুমদার হাতে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

20 + seventeen =