সুজয় মন্ডল, বসিরহাট :- হাসনাবাদ চকপাটলি গ্রামের বাসিন্দা গোলাম হোসেন মল্লিক পেশায় গৃহ শিক্ষক। তার কাছেই প্রাইভেট টিউশন পড়ত ঘুনি গ্রামের দশম শ্রেণীর এক ছাত্রী। ওই ছাত্রীকে বাড়ির লোকেরা জোর করে বিয়ে দিচ্ছে বলে অভিযোগ তুলে বুধবার হাসনাবাদ বিডিও-র কাছে দ্বারস্থ হন ওই গৃহশিক্ষক। ছাত্রীর বিয়ে রুখতে বিডিওর নিকট লিখিত অভিযোগ দেন তিনি। সেইমতো গৃহ শিক্ষককে সঙ্গে নিয়ে বিডিও অফিসের কন্যাশ্রী বিভাগের আধিকারিকরা এদিন গ্রামে গেলে ছাত্রীর পরিবারের আক্রোশের মুখে পড়তে হয় তাদের। ছাত্রীর পরিবারের বেধড়ক প্রহারের মুখে পড়তে হয় এই গৃহ শিক্ষককে। কোনও মতে রোষের মুখ থেকে গৃহ শিক্ষককে উদ্ধার করে গ্রাম থেকে চলে আসতে হয় আধিকারিকদের। ঘটনার বিষয়ে হাসনাবাদ বিডিও অফিসের কন্যাশ্রী বিভাগের আধিকারিক প্রণব মুখার্জি বলেন, “ছাত্রীকে বিয়ে করতে চেয়েছিলেন ওই গৃহ শিক্ষক। তাতে ছাত্রীর পরিবার সম্মত না থাকায় নাবালিকা বিয়ের নাম করে মিথ্যে অভিযোগ দেন তিনি”। নাবালিকা বিয়ে রোধ করার নাম করে প্রশাসনকে ভুল পথে চালিত করার অভিযোগে ওই যুবকের বিরুদ্ধে যথাযথ পদক্ষেপ নেওয়া হবে বলে জানান প্রণববাবু।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

nine + nine =