অলোক আচার্য, নব বারাকপুরঃ- নব বারাকপুরের প্রতিষ্ঠাতা রূপকার প্রাণপুরুষ কর্মবীর হরিপদ বিশ্বাসের ১২২তম জন্মদিন যথাযোগ্য মর্যাদা সহকারে মঙ্গলবার সকালে স্বাস্থ্যবিধি মেনে মাস্ক পরে পালিত হয় । এদিন সকালে নব বারাকপুর শহরে তার নামঙ্কিত পাঁচটি আবক্ষ মর্মর মূর্তিতে মালা ও ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান বিশ্বাস পরিবার, হরিপদ বিশ্বাস স্মৃতি রক্ষা কমিটি এবং কোঅপারেটিভ হোমস লিমিটেডের সদস্যরা। হরিপদ বিশ্বাস স্মৃতি শিশু উদ্যানে, দুর্গাবাড়ি ট্রাস্ট মন্দির প্রাঙ্গণে, আচার্য প্রফুল্ল চন্দ্র মহাবিদ্যালয়ে, সমবায় হোমস লিমিটেডে, সর্বজনীন কালি মন্দিরে প্রতিচ্ছবিতে, আহারামপুর সাহাড়া উচ্চ বালক বিদ্যালয়ে মূর্তিতে মাল্যদান করে শ্রদ্ধা জানান বিশ্বাস পরিবারের পক্ষ থেকে হরিপদ বিশ্বাসের কনিষ্ঠ পুত্র দীপক কুমার বিশ্বাস।

হরিপদ বিশ্বাস শিশু উদ্যানে তার মূর্তিতে মালা দিয়ে শ্রদ্ধা জানান ডাঃ বি সি দেব, চন্দ্রশেখর দে, বিপ্লব দত্ত, সমাজসেবী অসীম দাস, সুভাষ দাস, বুলু দাস, কবি মেঘমালা বসু চৌধুরী, দীপক কুমার বিশ্বাস, সমর মজুমদার, অসিত ভট্টাচার্য প্রমুখ। নব বারাকপুর কোঅপারেটিভ হোমস লিমিটেডের উদ্যোগে এদিন মূর্তিতে মাল্যদান করে শ্রদ্ধা জানান চেয়ারম্যান নির্মল বসু, সম্পাদক শিতাংসু শেখর গুহ, সহ ডিরেক্টররা।

উল্লেখ্য খুলনা জেলার দৌলতপুর সাব ডিভিশনের ব্যারাকপুর গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন হরিপদ বিশ্বাস। ১৯০০সালের ১৮অক্টোবর। ১৩০৬ বঙ্গাব্দের ১ কার্তিক। ব্যারাকপুর গ্রাম থেকে নব বারাকপুরের নাম পত্তন হয়। বহু স্কুল কলেজ, ক্লাব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, ব্যাংক ও পুরসভা স্থাপন করেছেন।

হরিপদ বিশ্বাসের সুযোগ্য কনিষ্ঠ পুত্র দীপক কুমার বিশ্বাস জানান, প্রতি বছরের মতো এবছর ও হরিপদ বিশ্বাসের ১২২ তম জন্মদিন উপলক্ষে তার নামাঙ্কিত পাঁচটি মর্মর মূর্তিতে এবং বিশ্বাস পরিবার ভবনে ওমালা দিয়ে শ্রদ্ধা জানান হয়। আগামী ৩১ অক্টোবর স্থানীয় রামকৃষ্ণ পাঠাগার মঞ্চে হরিপদ বিশ্বাসের ১২২ তম জন্মতিথি উদযাপন উপলক্ষে সমাজের বিশিষ্ট গুণীজনদের সংবর্ধিত করা হবে পাশাপাশি সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও হবে বলে জানান দীপক কুমার বিশ্বাস। হরিপদ বিশ্বাসের স্মৃতি চারণ করেন গুণীজনেরা।

উল্লেখ্য ১৯৬৫ সনের ১৬ আগষ্ট ১৬ টি ওয়ার্ড নিয়ে নব বারাকপুর পুরসভা প্রতিষ্ঠিত হয়। এটাই ছিল পশ্চিমবঙ্গের উদ্বাস্তু কলোনিগুলির মধ্যে প্রথম পুরসভা। নব বারাকপুর সমবায় হোমসের অনুক্রম ছিল এই পুরসভা। সে জন্য স্বাভাবিক ও সঙ্গত কারণেই সমিতির সভাপতি হরিপদ বিশ্বাস এবং সহকারী সভাপতি সুধীরচন্দ্র সান্যাল যথাক্রমে প্রথম পুরসভার পুর প্রধান ও উপ পৌর প্রধান নির্বাচিত হন। প্রতিটি স্কুল কলেজের গঠন পর্বে সম্পাদক ছিলেন হরিপদ বাবু।