অলোক আচার্য, নববারাকপুরঃ- তৃণমূল কংগ্রেস মানে উন্নয়ন। তৃণমূল কংগ্রেস মানে মানুষের সাথে। মানুষের পাশে। তৃণমূল কংগ্রেসের কর্মীরা শুধু ভোটের রাজনীতি ময়দানে নয়। মানব সেবায় ব্রতী হয়ে মানুষের পাশে দাঁড়ায়। দলনেত্রী সব সময় বলেন মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে পরিষেবা দেওয়া প্রধান কাজ। জাকিয়ে শীত পড়তেই শীতবস্ত্রের জন্য বহু অসহায় বৃদ্ধ-বৃদ্ধারা ঘোরাঘুরি করে। সেই সব প্রান্তিক মানুষদের হাতে প্রীতি শীতবস্ত্র উপহার (কম্বল) তুলে দিল নববারাকপুর শহর তৃণমূল ছাত্র পরিষদ। নববারাকপুর শহরে বিভিন্ন ওয়ার্ডের প্রান্তিক মানুষদের হাতে কম্বল প্রীতি উপহার তুলে তাদের মুখে হাসি ফোঁটাতে পেরে গর্বিত ও আনন্দিত তৃণমূল ছাত্র পরিষদের কর্মীরা।

সোমবার সন্ধ্যায় পুরসভার ৬নং ওয়ার্ডের নেতাজী সুভাষ শিশু উদ্যানের সুসজ্জিত মঞ্চে দেড় শতাধিক আবাল বৃদ্ধ-বৃদ্ধাদের হাতে শীত বস্ত্র প্রীতি উপহার তুলে দিলেন নববারাকপুর পুরসভার মুখ্য প্রশাসক প্রবীর সাহা, সহ পুরসভার প্রশাসক মন্ডলীর সদস্য নির্মিকা বাগচী, কোঅর্ডিনেটর স্বপ্না বিশ্বাস, ডাঃ পংকজ কুমার অধিকারী, ডাঃ অশোক মিত্র, পানিহাটি মহাবিদ্যালয়ের অধ্যাপক শিবেন্দু দত্ত, ইন্ডিয়ান আর্ট কলেজের অধ্যক্ষ দেবাশিস মিত্র, মধ্যমগ্রাম শহর তৃণমূল ছাত্র পরিষদের সভাপতি বিশ্বজিৎ সাহা, তৃণমূল ছাত্র পরিষদের সহ সভাপতি সুমন দে, সৌমিক বোস, প্রফুল্লচন্দ্র মহাবিদ্যালয়ের তৃণমূল ছাত্র পরিষদের সাধারণ সম্পাদক পল্লব মিস্ত্রি, বর্ষীয়ান শিক্ষক সুনিল দে, তৃণমূল যুব নেতা সুকাজল দাস সহ বিভিন্ন ওয়ার্ডের তৃণমূল ছাত্র পরিষদের কর্মীবৃন্দ ও বিভিন্ন ওয়ার্ডের তৃণমূল সভাপতি রা। উপস্থিত বিশিষ্ট জনেরা শহরের নানাবিধ উন্নয়নের পাশাপাশি তৃণমূল ছাত্র পরিষদের এহেন মানবিক উদ্যোগের ভূয়সী প্রশংসা করেন।

সমগ্র অনুষ্ঠানটি পরিচালনা ও সঞ্চালনা করেন নববারাকপুর শহর তৃণমূল ছাত্র পরিষদের সভাপতি মনোজ কুমার সরকার। মনোজ সরকার জানান, মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বারবার বলেন মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে কাজ করতে হবে। তৃণমূলের ছাত্র সংগঠন সেই কাজটাই করছে সমাজের প্রান্তিক মানুষদের হাতে প্রীতি শীতবস্ত্র কম্বল উপহার প্রদান করল। এলাকাবাসীর স্বার্থে উন্নয়নের আরও বড় আকারে বেশি পরিষেবা পৌঁছে দিতে বদ্ধপরিকর তৃণমূল ছাত্র পরিষদ।