অলোক আচার্য, নববারাকপুরঃ- নববারাকপুরে মঙ্গলবার রাতে কৃতি পড়ুয়া ও মায়েদের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে উপস্থিত মন্ত্রী চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য ও সাংসদ সৌগত রায়।এদিন মন্ত্রী বলেন মায়েদের হাত ধরেই প্রথম শিক্ষা গুরু হয়। পিতা নিশ্চয়ই আছে। মায়ের শরীরের উষ্ণতা দিয়ে প্রথম হাত ধরে চলা থেকে শুরু করে। সন্তানকে ধরে রেখে এগিয়ে নিয়ে যায় মা। মায়েরাই প্রথম শিক্ষা গুরু। সামাজিক শিক্ষায় মায়েরাই প্রথম শিক্ষা গুরু। সামাজিক শিক্ষা থেকে পরবর্তী শিক্ষা বহন করে থাকে মায়েরা। তারপর বিভিন্ন বিদ্যালয়ের কলেজের শিক্ষক শিক্ষিকা অধ্যাপক অধ্যাপিকারা ছাত্র ছাত্রীদের এগিয়ে নিয়ে যায়। উত্তীর্ণ হলে সব থেকে বেশি খুশি হন অভিভাবকরা। ভাল রেজাল্ট ছেলে মেয়েরা দেশের দশের হয়ে সব থেকে বড় পাওনা মায়েদের। সেই আনন্দ পেয়ে উত্তীর্ণ পড়ুয়াদের পাশাপাশি মায়েরা আনন্দিত হয়ে বেশি খুশি।

নববারাকপুর পুরসভার ১৯নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মনোজ সরকার যে অভিনব উদ্যোগ নিয়েছে কৃতি পড়ুয়াদের সংবর্ধনার পাশাপাশি মায়েদের পরমা সন্মান। যথেষ্ট অভিনন্দন যোগ্য। প্রশংসনীয় উদ্যোগ। শারদীয়া উৎসবের প্রাক্কালে এলাকায় দুঃস্থ মহিলাদের প্রীতি উপহার তুলে দেওয়া হয় এদিন। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় নববারাকপুর পুরসভার ১৯নং ওয়ার্ড কমিটির উদ্যোগে ৭নং রেলগেট সংলগ্ন অঙ্গনা ভবনের সামনে অস্থায়ী প্রাঙ্গণে কৃতী পড়ুয়াদের তৎসহ মায়েদের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে এসে কথাগুলি বলেন রাজ্যের অর্থমন্ত্রী চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য।

মন্ত্রী বলেন মা না থাকলে কিছুই হয় না। গণেশ যেমন মায়ের চারপাশে ঘুরে পুরো জগৎ দেখতে পাচ্ছে। কৃতী সন্তানরা মায়ের চারপাশে থেকে পুরো জগৎ চিনবে। মায়েদের ছাড়া কিছুই হয় না। অভিভাবকদের যথেষ্ট বড় অবদান রয়েছে। নববারাকপুর শহরে অনেক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান রয়েছে। ছোট পুরসভা শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বড় পরিসরে প্রতিষ্ঠিত করেছেন হরিপদ বিশ্বাস। পরবর্তী সমাজকে এগিয়ে নিয়ে যাবার জন্য যা যা করার দরকার সেই সব কাজ করবে পুরসভা।

সাংসদ সৌগত রায় বলেন, ভালো করে পড়াশোনা করে ভাল মানুষ হতে হবে। ভালো মানুষ হও। সমাজকে গর্বিত কর। তৃণমূল কংগ্রেস সামাজিক দায়বদ্ধতা পালন করছে। তারা একা নয়।কৃতী পড়ুয়াদের পাশে রয়েছেন পুরসভা। সকলের মেধা সমান হয় না। শিক্ষা না থাকলে কিছু করতে পারবে না। ছেলে মেয়েদের এগিয়ে নিয়ে যেতে মায়েদের আত্মত্যাগ রয়েছে। কোলে পিঠে এগিয়ে নিয়ে গিয়ে লেখাপড়া শেখাতে গৃহ শিক্ষকের কাছে নিয়ে যাওয়া থেকে বিদ্যালয় মুখ। নববারাকপুরে একটি এডুকেশনাল হাব হবে বলেন সাংসদ। হরিপদ বিশ্বাস অনেক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান করে গিয়েছেন এলাকায়। নববারাকপুর শিক্ষা দীক্ষায় অনেকটা এগিয়ে। মন্ত্রী চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য মুখ্যমন্ত্রীর খুব স্নেহধন্য। চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য তার বিধানসভা এলাকায় একটি এডুকেশনাল হাব করবেন বলে আশাবাদী সাংসদ। সময় টা এখন একটু খারাপ যাচ্ছে।

অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন পুরসভার পুরপ্রধান প্রবীর সাহা, উপ পুরপ্রধান স্বপ্না বিশ্বাস, পুরদলনেতা ডাঃ পংকজ কুমার অধিকারী সহ বিভিন্ন ওয়ার্ডের কাউন্সিলরগণ। সমগ্র অনুষ্ঠানটি পরিচালনা ও সঞ্চালনা করেন পুরসভার ১৯নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মনোজ সরকার।