কবিতা – নদীর পাড়ের মেয়ে

কবি – চঞ্চল মিস্তিরী

ভাসাই আমার গানের কমল তোমার পানে চেয়ে,
আলতা রাঙ্গা পা দুখানী ছুপিয়ে নদির জলে,
ঘাটে বসে চেয়ে আছ আঁধার অস্তাচলে।নিরুদ্দেশে ভাসিয়ে দেওয়া আমার কমল খানি
ছোঁয় কি গিয়ে নিত্য সাঝে
তোমার চরন রানী।
গানের গাঙ্গে খুঁজি তোমায়
সুরের তরি বেয়ে,
খোঁপায় গুঁজে কনক চাপা
গলায় টগর মালা,
আমার ব্যাথার মালঞ্চ ফুল
ফোটে তোমায় চেয়ে
শীতল নীরে নেয়ে ভোরে
ফুলের সাজি হাতে।
আমার কমল অভিমানের
কাঁটায় আছে ছেয়ে।
তোমার সখায় পূজ কি মোর
গানের কমল তুলি,
তুলতে সে ফুল মৃনাল কাঁটায়
বেঁধে কি অঙ্গুলি
ফুলের বুকে দোলে কাটার
অভিমানের মালা,
আমার কাঁটার ঘায়ে বোঝ
আমার বুকের জ্বালা,
নদীর পাড়ের মেয়ে।
যৌবন বেদনা রাঙ্গা তোমার
কবিতা খানি,
পড়িতাছি অনুরাগ ভরে।