Advertisement

সনাতন গরাই, দুর্গাপুর :- এবার ন্যাশানাল ইনস্টিটিউট অফ টেকনোলজির মত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের হোস্টেলে নিন্মমানের খাবার দেওয়া হচ্ছিল ছাত্র ছাত্রীদের।এই নিন্মমানের খাবার দেওয়ায় তারা প্রথমে হোস্টেল কর্তৃপক্ষকে জানায়।কলেজ ও হোস্টেল কর্তৃপক্ষ তাদের কথায় কোনো গুরুত্ব না দেওয়ায় হোস্টেলের ৬০০ছাত্রছাত্রী মিলে কিছুদিন আগে থেকে খাবার বয়কট করে।এর পর কলেজ কর্তৃপক্ষ পুরোনো কর্মীদের সরিয়ে নতুন কর্মী নিয়োগ করেন তাতেই শুরু হয় গন্ডগোল।পুরোনো ঠিকাদার কর্মীরা খাবারের গাড়ি আটকে দেয় ও নতুন কর্মীদের ঢুকতে বাধা দেয়।যার ফলে খাবারের সম্যসাই পড়তে হয় ছাত্রছাত্রীদের।অপরদিকে পুরোনো কর্মীরা জানান আমাদের সরিয়ে যদি নতুন কর্মীদের নিয়োগ করে কাজ করানো হয় তাহলে আরো বড়ো আন্দোলন চলবে।ছাত্রছাত্রীরা দুর্গাপুর মহকুমাশাসকের দ্বারস্থ হয় নিম্নমানের খাবার দেওয়ার প্রতিবাদে।দুর্গাপুরের মহকুমাশাসক অনির্বান কোলে ছাত্রছাত্রীদের জানায় যারা সম্যসা করছে তাদের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ করতে।ছাত্রছাত্রীদের অভিযোগ মাস গেলে মোটা অঙ্কের টাকা গুনে নেই তাহলে আমরা খারাপ খাবার খাবো কেনো।পচা খাবার দেয় আমাদের কোনো কোনোদিন টিকটিকি আরশোলা থেকে বিষাক্ত পোকামাকড় ও পরে থাকে। ছাত্রছাত্রীদের অভিযোগ এত বড়ো একটা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের এমন খাবার এটা দেখে সত্যিই আমরা অবাক হচ্ছি।আসানসোল দুর্গাপুর পুলিশ সুপার অভিষেক গুপ্তা জানান নতুন কর্মীদের সাথে পুরোনো কর্মীদের ইন্টারভিউ এর মাধ্যেমে পূনরায় কয়েকজন কে নেওয়া হোক তাহলে কিছুটা হলেও সম্যসা মিটবে।কলেজের ডিরেক্টর জানান কলেজের ক্যাম্পাসের বাইরে এমন কান্ড সত্যিই দৃষ্টিকটু পুলিশ একটু সাহার্যের হাত বাড়িয়ে দিলে সমস্ত সম্যসা মিটে যাবে। পুরোনো কর্মীরা জানান আমাদের কাজে ফিরিয়ে না নিলে চলবে আরো বড়ো আন্দোলন।প্রয়জনে আটকে দেওয়া হবে ছাত্রছাত্রীদের খাবারের গাড়ি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

six + 3 =