অলোক আচার্য, সোদপুর :- শারদীয়া উৎসবের মহাচতুর্থীর সকালে দুঃস্হ অসহায় শিশু কিশোরদের বৃদ্ধ বৃদ্ধাদের পাশে দাঁড়িয়ে তাদের মুখে হাসিঁ ফোটাল মধ্যমগ্রাম কল্পতরু ওয়েলফেয়ার সোসাইটির সদস্যরা। উত্তর ২৪ পরগণা জেলার সোদপুর সাই মন্দির হয়ে লাগোয়া দক্ষিণেশ্বর আদ্যাপিঠ মন্দিরের শিশু থেকে আবাল বৃদ্ধ বৃদ্ধাদের হাতে নববস্ত্র তুলে দিল স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের সদস্যরা। শিশুদের জামা, প্যান্ট ও গেজ্ঞি। বৃদ্ধ- বৃদ্ধাদের লুঙ্গি, ধুতি ও শাড়ি তুলে দেওয়া হয়।

আবার নববস্ত্রের পাশাপাশি প্রাতরাশের খাবারের প্যাকেট ও তুলে দেন সংস্হার সদস্যরা। অসহায় শিশু থেকে আবাল বৃদ্ধ বৃদ্ধারা বেজায় খুশী নতুন পোষাক ও খাবার পেয়ে। সোসাইটির পক্ষে তনয়া ঘোষ ও বীদিশা চক্রবর্তী জানান, দীর্ঘ পাঁচ বছর ধরে পুজোর সময় অসহায় আর্ত পীড়িত শিশুকিশোর ও বৃদ্ধ বৃদ্ধাদের হাতে নববস্ত্র তুলে দেওয়া হয়। পুজোর সময় আমরা সকলেই ব্যস্ত থাকি নিজেরা পড়ব খাবো ঘুরব মজা করব। এইসব অসহায় আর্ত পীড়িত মানুষগুলির কথা আমরা বেমালুম ভুলে যাই। তাদের ও তো ইচ্ছা করে পুজোয় নতুব জামাকাপড় পরবার।

সোদপুর প্রত্যন্ত এলাকায় রাস্তার ধারে সাই ও দক্ষিণেশ্বর আদ্যাপিঠ মন্দিরের অসহায় প্রায় দুইশতাধিক শিশু বৃদ্ধ বৃদ্ধাদের হাতে নববস্ত্র তুলে দেওয়া হয় জাতীর জনক মহাত্মা গান্ধীর দেড়শোতম জন্মবার্ষিকীতে। গান্ধীজীর পুন্য জন্মদিনে অসহায় মানুষদের পাশে দাড়িয়ে মানবসেবার কাজ করে আমরা গর্বিত ও আনন্দিত। মানব সেবা বড় কাজ। সঙ্গে ছিলেন সোসাইটির সদস্য রাখি দত্ত, দেবলিনা ঘোষ, সায়ন সরকার, সৌমিত দত্ত, প্রদীপ ঘোষ সহ আরো অনেকে।