“দিদিকে বলো” কর্মসূচির তৃতীয় ধাপে সফল করতে পথে নামলো নিউ বারাকপুর শহর তৃণমূল যুব কংগ্রেস

0
Advertisement

অলোক আচার্য, নিউবারাকপুর :- “দিদিকে বলো’ জনসংযোগ কর্মসূচির তৃতীয় ধাপে সফল রুপায়নে পথে নামলো তৃণমৃল যুব কংগ্রেস। সর্বভারতীয় তৃণমূল যুব কংগ্রেসের সভাপতি তথা সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের নির্দেশে জেলার বিভিন্ন ব্লকে শহরে গ্রামে যুব তৃণমূলের সভাপতি দের সাধারন মানুষের সঙ্গে বেশি করে নিবিড় জনসংযোগ গড়ে তুলতে হবে। অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের নির্দেশিত পথে শুক্রবার সন্ধ্যায় সাংবাদিক সন্মেলনের মাধ্যমে সাধারন মানুষের সাথে সম্পর্ক আরও নিবিড় করতে দিদিকে বলো’ কর্মসূচি সফল রুপায়নে পথে নামলো নিউ বারাকপুর শহর তৃণমূল যুব কংগ্রেস।

সাজিরহাট নেতাজী ভবন ২ কার্যালয়ে সাংবাদিক সন্মেলনের মাধ্যমে কর্মসূচি গ্রহন করা হয়। নিউ বারাকপুর শহর তৃণমূল যুব কংগ্রেসের সভাপতি সুমন দের নেতৃত্বে পুর এলাকার যুব তৃণমূলের কর্মী সমর্থকদের সাথে করে নিয়ে দিদিকে বলো ছাপ লাগানো গেজ্ঞি ও ফ্লেক্স পরে প্রচারাভিযান নামেন। সাজিরহাট অঞ্চলে বিভিন্ন দোকানদার ব্যবসায়ী দের হাতে মুখ্যমন্ত্রীর টোল ফ্রি নম্বর সহ ওয়েবসাইটের একটি কার্ড তুলে দেন। দিদিকে বলো ট্যাগ লাগানো কার্ড ধরিয়ে তৃণমৃল যুব কংগ্রেসের সভাপতি সুমন দে বলেন আপনারা অভাব অভিযোগের কথা বা অন্য কোন সমস্যা মতামত জানাবেন ৯১৩৭০৯১৩৭০ এই টোল ফ্রি নম্বরে বা ওয়েবসাইটে। মুখ্যমন্ত্রীর কাছে সরাসরি পৌছে যাবে আপনার মতামত বা সমস্যা। তিনি ই সমস্যার সমাধান করার চেষ্টা করবেন। স্হানীয় দোকানদাররা ও ব্যবসায়ীরা বেজায় খুশী। মুখ্যমন্ত্রীর এই অভিনব উদ্যোগের প্রশংসা করেন। দলের সাংসদ বিধায়ক নেতা মন্ত্রীদের পাশাপাশি তৃণমূলের যুব কর্মীরা মাঠে নামল কর্মসূচি সফল করতে। সুমন দে আরো ও বলেন পুর এলাকায় ২০টি ওয়ার্ডে প্রত্যেক বাড়িতে ঘরে ঘরে দরজায় কড়া নেড়ে মানুষের কাছে পৌঁছে দেওয়া হবে। ইতিমধ্যে পুর এলাকায় বিভিন্ন ওয়ার্ডে এই দিদিকে বলো’ জনসংযোগ কর্মসূচি গ্রহনে ব্যাপক সাড়া ফেলে দিয়েছিল।

তৃণমূলের যুব কর্মীরা পুনরায় বাড়ি বাড়ি গিয়ে প্রচারাভিযান জোর দেওয়া হবে। সুমন দে দাবি করেন,মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় মুখ্যমন্ত্রী হওয়ার পর থেকে প্রত্যেক রবিবার সকাল ৯টা থেকে ১টা পর্যন্ত মানুষের কথা শোনেন। এমনকি বাড়ি থেকে বার হওয়ার সময় ও মানুষের অভাব অভিযোগের কথা শোনেন। তাছাড়াও রাস্তায় চলার পথে ও তিনি যেভাবে মানুষের সাহায্যে এগিয়ে যান তা নজির। তবে এতদিন যেটা তিনিএকা করতেন এবার সেটা আরও বৃহৎ আকারে সবাই মিলে করবেন। তৃণমূলের ইতিহাসে বৃহত্তম জনসংযোগ। এত বড় এবং এত সুপরিকল্পিত।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

4 + 17 =